যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান পার্টির প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প মনে করেন, নির্বাচন বাতিল করে তাকে বিজয়ী ঘোষণা করা হোক। গত বৃহস্পতিবার ‘সুয়িং স্টেট’ ওহাইওর এক নির্বাচনী সমাবেশে তিনি এ মন্তব্য করেন। এ সময় তিনি তার প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী ডেমোক্র্যাট দলীয় প্রার্থী হিলারি ক্লিনটনকে খারাপ প্রার্থী হিসেবে আখ্যায়িত করেন।

অন্যদিকে এবারের নির্বাচনে প্রথমবারের মতো নির্বাচনী প্রচারে হিলারি ক্লিনটনের সঙ্গে এক মঞ্চে উঠলেন মার্কিন ফার্স্ট লেডি মিশেল ওবামা। বৃহস্পতিবার আরেক সুয়িং স্টেট নর্থ ক্যারোলাইনায় এক নির্বাচনী সমাবেশে তিনি হিলারির সঙ্গে মঞ্চে উঠেন। এ সময় মিশেল হিলারিকে নিজের মেয়ে (মাই গার্ল) এবং ইতিহাসের সবচেয়ে যোগ্য প্রার্থী আখ্যায়িত করে তার জন্য ভোট চান।

যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোটগ্রহণের আর বাকি মাত্র ১০ দিন। ৮ নভেম্বর নির্বাচন সামনে রেখে ইতিমধ্যে অনেকেই আগাম ভোট দিয়েছেন। এর মধ্যেই খবর প্রকাশ হয়েছে, আগাম ভোটে হিলারি এগিয়ে আছেন। একই সঙ্গে নির্বাচনে জাতীয় জরিপেও মাসখানেক ধরে এগিয়ে আছেন হিলারি। তবে জরিপে বেশ কিছু রাজ্যে এগিয়ে আছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। এর মধ্যে অনেক গুরুত্বপূর্ণ সুয়িং স্টেটও (দোদুল্যমান ভোটারদের রাজ্য) রয়েছে।

এ অবস্থায় গত বৃহস্পতিবার ওহাইও অঙ্গরাজ্যে নির্বাচনী সমবেশে বক্তব্য দেন রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প। সমাবেশে তিনি বলেন, ‘এ মুহূর্তে আমি ভাবছি, এই নির্বাচন আমাদের বাতিল করে দেওয়া উচিত এবং ট্রম্পকে বিজয়ী ঘোষণা করা উচিত।’ তিনি হিলারিকে উদ্দেশ করে বলেন, ‘তার নীতি খুবই খারাপ। এই  জায়গায় তার সঙ্গে আমাদের বিশাল পার্থক্য আছে।’

ট্রাম্প এই নির্বাচনকে কারচুপির নির্বাচন বলে মন্তব্য করেন। এর পক্ষে যুক্তি দিয়ে বলেন, গণমাধ্যম ও কায়েমি রাজনীতিবিদরা তার প্রচারে ভরাডুবি ঘটাতে ষড়যন্ত্র করছে। তিনি তার সমর্থকদের সতর্ক করে দিয়ে বলেন, তাদের প্রেসিডেন্ট পদ ভোটারদের কাছ থেকে চুরি হয়ে যেতে পারে।

সমাবেশে ট্রাম্প আরো বলেন, ‘আমরা হোয়াইট হাউসে ফিরে যাচ্ছি। যদি আমরা ৮ নভেম্বর বিজয়ী হয়। নিশ্চয়, নিশ্চয়ই, আমরা যখন ৮ নভেম্বর বিজয়ী হব।’ তিনি আরো বলেন, ‘আমরা নিশ্চয়তা দিতে চাই না। তবে আমরা অনেক অঙ্গরাজ্যে জিততে চলেছি।’

হিলারির প্রতি মিডিয়ার পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ এনে ট্রাম্প বলেন, কিন্তু এর পরও তিনি ফ্লোরিডায় জয়ী হবেন, নর্থ ক্যারোলাইনায় জয়ী হবেন, আইওয়ায় জয়ী হবেন, ওহাইওতে জয়ী হবেন। প্রসঙ্গত, ওহাইও ও নর্থ ক্যারোলাইনায় এগিয়ে আছেন ট্রাম্প।

এক মঞ্চে হিলারি ও মিশেল : বৃহস্পতিবার নর্থ ক্যারোলাইনায় প্রথমবারের মতো এক মঞ্চে উঠে নির্বাচনী প্রচার চালিয়েছেন হিলারি  ক্লিনটন ও ফার্স্ট লেডি মিশেল ওবামা। এ সময় মিশেল হিলারিকে প্রেসিডেন্ট পদের জন্য ইতিহাসের সবচেয়ে প্রস্তুত হয়ে আসা প্রার্থী বলে আখ্যায়িত করেন। একই সঙ্গে তিনি হিলারিকে ‘মাই গার্ল’ (আমার মেয়ে) বলে ভোটারদের মন জয় করার চেষ্টা করেন।

এর আগেও বেশ কয়েকটি অঙ্গরাজ্যে হিলারির পক্ষে প্রচার চালিয়েছেন মিশেল ওবামা। তবে একই মঞ্চে দুজনের একসঙ্গে ওঠা হয়নি। ফলে নর্থ ক্যারোলাইনার এই প্রচার নিয়ে সবারই আগ্রহ ছিল বেশি।

নর্থ ক্যারোলাইনার এই সমাবেশে হিলারিকে ভোট দেওয়ার জন্য আহ্বান জানান মিশেল। তিনি বলেন, হিলারির মতো এত বেশি যোগ্য প্রার্থী এর আগে মার্কিন ইতিহাসে আসেননি। তা ছাড়া হিলারির সঙ্গে ব্যক্তিগত বন্ধুত্বের কথাও উল্লেখ করেন তিনি। অতীত বিরোধিতার কারণে তাঁদের এই এক মঞ্চে ওঠার বিষয়টি সবার নজর কাড়ে। অতীত বিরোধিতা ভুলে গিয়ে দুজনই জনতাকে দেখানোর চেষ্টা করেন যে তাঁদের সম্পর্ক রাজনীতির চেয়েও ভিন্ন।

মঞ্চে উঠে হিলারি প্রথমে প্রশংসা করেন মিশেল ওবামার। বিশেষ করে বিশ্বব্যাপী নারী ও মেয়েদের অধিকারের পক্ষে মিশেল বক্তব্য দেওয়ায় তাঁকে ধন্যবাদ জানান হিলারি। এ সময় হিলারি ডোনাল্ডকে ইঙ্গিত করে বলেন, ‘এই কথাগুলো বলতে চাইনি। কিন্তু নিশ্চিতভাবেই নারী ও মেয়েদের জন্য সম্মান ও মর্যাদার বিষয়টিও এখন নির্বাচনের একটি বিষয়। এবং আমি ধন্যবাদ জানাতে চাই আমাদের ফার্স্ট লেডিকে যিনি এই মৌলিক মূল্যবোধকে শক্তভাবে সমর্থন করেছেন।’

মিশেল তাঁর বক্তৃতায় বলেন, ‘আমরা এমন একজন প্রেসিডেন্টকে চাই যিনি তাঁর কাজটি গুরুত্ব দিয়ে করবেন এবং ওই কাজ ভালোভাবে করার জন্য তাঁর উপযুক্ত মেজাজ ও পরিপক্বতা রয়েছে। আমরা এমন একজন চাই যিনি দায়িত্ব পালনে অটল থাকবেন। যাঁর প্রতি আমরা পারমাণবিক অস্ত্রের বিষয়েও আস্থা রাখতে পারব। আমি আপনাদের সামনে মিথ্যা বলব না। আমি সর্বান্তকরণে মনে করি, হিলারি ক্লিনটনই সেই প্রেসিডেন্ট হবেন।’ শুধু তাই নয়, হিলারিকে মার্কিন ইতিহাসে প্রেসিডেন্ট পদে সবচেয়ে যোগ্য প্রার্থী হিসেবেও বর্ণনা করেন মিশেল।

২০০৮ সালের প্রেসিডেনশিয়াল নির্বাচনে স্বামী বারাক ওবামার দলীয় প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন হিলারি। ওই সময় হিলারির কিছু সমালোচনাও করেছিলেন মিশেল। অতীতের সেই তিক্ততাকে দূরে ঠেলে বৃহস্পতিবার তাঁরা পরস্পরকে আলিঙ্গন করেন হাস্যোজ্জ্বল মুখে।

পরস্পরের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক নিয়েও কথা বলেন তাঁরা। মিশেল বলেন, ‘অনেকেই ভাবে, আমরা বন্ধু কি না। হ্যাঁ, সে আমার বন্ধু। তারা (হিলারি ও বিল ক্লিনটন) আমার স্বামীর প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ গ্রহণের দিন থেকেই আমাদের সমর্থন জানিয়ে আসছে।’ হিলারিকেও তাই নিজের বন্ধু হিসেবেই স্বীকৃতি দেন মিশেল। দুজনের কথাবার্তার একপর্যায়ে হিলারি ক্লিনটন মিশেলকে প্রতিশ্রুতি দেন, তিনি প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলে হোয়াইট হাউসে মিশেলের গড়ে তোলা সবজির বাগানের দেখভাল করবেন।

হিন্দিতে কথা বললেন ট্রাম্প! : নির্বাচনে ভারতীয় বংশোদ্ভূত আমেরিকানদের ভোট পেতে হিন্দি ভাষায় একটি প্রচারণা ভিডিও প্রকাশ করেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। ভিডিওতে তিনি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নির্বাচনী প্রচারের একটি স্লোগান নকল করেন। হিন্দিতে ট্রাম্প বলেছেন ‘আব কি বার ট্রাম্প সরকার।’

ভিডিওতে ট্রাম্পকে বলতে দেখা গেছে, ‘আমি জিতলে ভারতীয় ও হিন্দুসমাজ হোয়াইট হাউসে একজন ভালো বন্ধু পাবে। আমরা উগ্র মৌলবাদী ইসলামিক সন্ত্রাসবাদকে পরাস্ত করব।’ এ নিয়ে ভারতীয়দের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া পাওয়া গেছে। সূত্র : বিবিসি, সিএনএন, এএফপি।

34

LEAVE A REPLY