কলেজ শিক্ষককে কান ধরে উঠবস করালেন ইউপি চেয়ারম্যান

জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার হাতীভাঙ্গা এমএম মেমোরিয়াল ডিগ্রি কলেজের ইতিহাস বিভাগের প্রভাষক আসাদুজ্জামানকে কান ধরে উঠবস করানোর অভিযোগ উঠেছে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে। এছাড়া অশালীন ভাষায় গালিগালাজ ও লোকজন দিয়ে মারধরেও অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গত বৃহস্পতিবার এই ঘটনা ঘটলেও ৫ দিন পর মঙ্গলবার এবিষয়ে ইউএনও’র কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ওই প্রভাষক।

অভিযোগ করে বলা হচ্ছে, গত ৩ নভেম্বর উপজেলার হাতীভাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদে জমি সংক্রান্ত বিষয়ে একটি সালিশে ইউপি চেয়ারম্যান দৌলত হোসেন চৌধুরী ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে অশালীন ভাষায় গালিগালাজ, পরিষদের খাদ্য গুদামে ২-৩ ঘণ্টা তালা বন্ধ করে রাখা ও ১০ বার কান ধরে উঠাবসা করিয়েছেন।

এ বিষয়ে প্রভাষক আসাদুজ্জামান জানান, চাকরিচ্যুতির ভয়ে ঘটনার ৫ দিন পরে বিবেকের তাড়নায় ইউএনও বরাবর লিখিতভাবে ঘটনাটি জানিয়েছি। একইসঙ্গে বিষয়টি কলেজ অধ্যক্ষকেও জানিয়েছি।

ইউপি চেয়ারম্যান দৌলত হোসেন চৌধুরীর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, পরিষদে আদালত কার্যক্রম চলার সময় আসাদুজ্জামান তার উপর আক্রমণ করেন। এতে তিনি ওই প্রভাষককে বলেছিলেন, তুমি যে কাজ করেছো তাতে তোমার কান ধরে উঠাবসা করা উচিৎ। ওমনি আসাদুজ্জামান নিজের কান নিজেই ধরে উঠাবসা করেছেন। আমি তাকে বাধ্য করি নাই।

তিনি ওই প্রভাষক সম্পর্কে আরও বলেন, তিনি এমন এক ব্যক্তি যিনি তার বাবাকে হাজত খাটিয়েছেন এবং স্ত্রীকেও নির্যাতন করেন।

LEAVE A REPLY