বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ বিপিএলে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের বোলিং ক্যারিশমায় চিটাগাং ভাইকিংসকে ৪ রানে হারিয়েছে খুলনা টাইটান্স। খুলনার দেয়া ১২৮ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১২৩ রান সংগ্রহ করেছে চিটাগাং ভাইকিংস।

শনিবার মিরপুরে দিনের প্রথম খেলায় টসে জয়লাভ করেন চিটাগাংয়ের অধিনায়ক তামিম ইকবাল। তিনি প্রথমে খুলনাকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানান।

শেষ ওভারে জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল ৬ রানের। কিন্তু রিয়াদের করা ওভারে মাত্র ১ রান তুলতে পেরেছে চিটাগাং। হারিয়েছে ৩ উইকেট।

প্রথমে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১২৭ রান সংগ্রহ করে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের খুলনা। দলের পক্ষে রিকি ওয়েসেলস ২৮, নিকোলাস পুরান ২৯, আরিফুল হক ২৫ এবং অলক কাপালি ২৩ রান করেন।

চিটাগাংয়ের হয়ে মোহাম্মদ নবী ৩টি, তাসকিন ২টি এবং আব্দুর রাজ্জাক ১টি উইকেট লাভ করেন।

১২৮ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে শুরুতেই আউট হন তামিম ইকবাল। কেভিন কুপারের বলে শফিউলের হাতে ধরা পড়েন তিনি। তামিম মাত্র ৩ রান করেন। কুপারের দ্বিতীয় শিকার ডুয়েন স্মিথ। তিনিও ৩ রান করে কুপারের বলে জুনায়েদ খানের হাতে ধরা পড়েন।

এরপর ব্যক্তিগত ১৪ রানে এনামুল হক এবং ৪ রানে শোয়েব মালিককে লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলেন শফিউল ইসলাম। শফিউলের তৃতীয় শিকার জাকির হাসান। তিনি মাত্র ৮ রান করে রিকি ওয়েসেলসের হাতে ধরা পাড়েন। শফিউলের চতুর্থ শিকার জহুরুল ইসলাম। তিনি ২৫ রান করেন।

তবে দলকে জয়ের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে যান চতুরাঙ্গা ডি সিলভা এবং মোহাম্মদ নবী। শেষ ওভারে বল হাতে নেন রিয়াদ। প্রথম বলে ১ রান সংগ্রহ করেন নবী। তবে দ্বিতীয় বলেই ডি সিলভাকে আউট করেন রিয়াদ। ডি সিলভা করেন ১৯ রান।

তৃতীয় বলে রাজ্জাক কোনো রান করতে পারেননি। চতুর্থ বলে ওভার বাউন্ডারি মারতে গিয়ে শুভাগতের হাতে ধরা পড়েন রাজ্জাক। ৫ম বলে কোনো রান করতে পারেননি নবী। শেষ বলে জিততে হলে ৫ রানের প্রয়োজন ছিল। তবে অলক কাপালির হাতে ধরা পড়েন নবী।

এর আগে নিজেদের প্রথম ম্যাচেও রাজশাহীর সঙ্গে শেষ ওভারে রিয়াদের বোলিং ক্যারিশমায় ৩ রানে জিতেছিল খুলনা।

LEAVE A REPLY