দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ৮৫ রানে অল আউট হয়ে গেছে অস্ট্রেলিয়া। টেস্ট ইতিহাসে অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটিং লাইন আপে এই ঘটনাকে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ধ্বস হিসেবে বর্ণনা করছে ক্রিকেট বিশ্লেষকরা। কেননা এর আগে তাদের সবচাইতে বাজে শুরুটি ছিল ইংল্যান্ডের বিপক্ষে। ১৯৭৮ সালে গাব্বায় ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৩১ রানে ৬ উইকেট হারায় অস্ট্রেলিয়া।

হোবার্টে টসে হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নামা অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস টিকেছে মাত্র ৩২ দশমিক ৫ ওভার। অধিনায়ক স্টিভ স্মিথের ব্যাট থেকে সর্বোচ্চ অপরাজিত ৪৮ রানের ইনিংস এসেছে। দলের পক্ষে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১০ রান করেছেন জো মেনি। দক্ষিণ আফ্রিকার পেসার ভারনন ফিল্যান্ডার একাই গুঁড়িয়ে দিয়েছেন অস্ট্রেলিয়াকে। ২১ রানে নিয়েছেন ৫ উইকেট। এছাড়া কাইল অ্যাবট ৪১ রানে ৩টি এবং কাগিসো রাবাদা পেয়েছেন ২০ রানে ১ উইকেট। অস্ট্রেলিয়ার ৮৫ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে বিপর্যয়ে পড়ে দক্ষিণ আফ্রিকাও। ৭৬ রান তুলতেই হারিয়ে বসে ৪ উইকেট। সেখান থেকে হাশিম আমলা অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসিসকে নিয়ে ৩০ রানের জুটি গড়ে প্রাথমিক বিপর্যয় সামাল দেন। প্লেসিসের ফিরে যাওয়ার পর টেম্বা বাভুবাকে নিয়ে ইনিংস সংহত করেন আমলা। এই জুটিতে আসে ৫৬ রান।

৪৭ রান করে আমলা সাজঘরে ফেরার পর দলের হাল ধরেছেন বাভুমা ও কুইনটন ডি কক। প্রতিবেদন পর্যন্ত দক্ষিণ আফ্রিকার সংগ্রহ ৫ উইকেটে ১৭১ রান। বাভুমা ৩৮ এবং কক ২৮ রানে খেলছেন।

অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে ৩টি উইকেটই পেয়েছেন মিচেল স্টার্ক। আর ২টি তুলে নিয়েছেন হ্যাজলেউড।

পার্থ টেস্ট জিতে এগিয়ে রয়েছে সফরকারী দক্ষিণ আফ্রিকা।

LEAVE A REPLY