আন্তর্জাতিক ডেস্ক

নিউজিল্যান্ডের দক্ষিণাঞ্চলে শক্তিশালী একটি ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে। ভূমিকম্পের কেন্দ্রস্থল ক্রাইস্টচার্চ থেকে প্রায় ৬৫ কিলোমিটার দুরে। ভূমিকম্পের কেন্দ্রস্থল ভূপৃষ্ঠ থেকে মাত্র ১০ কিলোমিটার গভীরে। ভূমিকম্পে তাৎক্ষনিকভাবে হতাহতের কোন খবর পাওয়া যায়নি। খবর বিবিসি।

মার্কিন ভূতত্ব জরিপ বিভাগ বলছে, স্থানীয় সময় মধ্যরাতের পর (১১:০২ জিএমটি) ৭.৮ মাত্রার ঐ ভূমিকম্প আঘাত হানে। প্রাথমিক খবরে রিখটার স্কেলে ওই ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল ৭ দশমিক ৪ বলে উল্লেখ করা হয়।

দ্য হেরাল্ড পত্রিকা বলছে, দূরবর্তী শহর ওয়েলিংটনেও ভূমিকম্প টের পাওয়া গেছে। সেখানে সাইরেন বেজে ওঠার পর অনেকেই ঘর ছেড়ে রাস্তায় নেমে আসেন। এসময় অনেককে কাঁদতে দেখা যায়।

বার্তা সংস্থা এএফপি জানায়, ভূমিকম্পের ফলে অনেক এলাকায় বৈদ্যুতিক ব্যবস্থা ও ফোন নেটওয়ার্ক বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে।  প্রায় সারা দেশেই ভূকম্পন অনুভূত হয়েছে। কেন্দ্রস্থলের আশপাশের এলাকায় বেশ কিছু বাড়িঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

ভূমিকম্পের পর টুইট করেছেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জন কি। তিনি বলেছেন, ‘আশা করছি, সবাই নিরাপদে আছেন।’

দেশটির ন্যাশনাল সিভিল ডিফেন্স জানায়, ভূমিকম্পের পর প্রথম আসা সামুদ্রিক ঢেউ তেমন বড় ছিল না। কিন্তু সুনামি মোকাবিলার কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে

মার্কিন প্রশান্ত মহাসাগরীয় সুনামি সতর্কতা কেন্দ্র বলছে, এখনো পর্যন্ত তারা সুনামির কোন সম্ভাবনা দেখছেন না।

২০১১ সালের এক ভূমিকম্পে ক্রাইস্টচার্চে ১৮৫ জন নিহত হয়েছিলেন এবং শহরের কেন্দ্রস্থল প্রায় ধ্বংস হয়ে গিয়েছিল। সেই ধাক্কা এখনো পুরোপুরি কাটিয়ে উঠতে পারেনি শহরটি।

LEAVE A REPLY