নিজস্ব প্রতিনিধি, জাবি:

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) প্রকৃতি ও পরিবেশ ধ্বংস করে যত্রতত্র গড়ে ওঠা দোকানপাট উচ্ছেদ ও অস্বাস্থকর পরিবেশে খাবার বিক্রি বন্ধের দাবি জানিয়ে মানববন্ধন ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। সোমবার সকাল সাড়ে ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বটতলায় পাঁচ মিনিট প্রতীকী অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। এরপর পৌনে ১১ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে মাবনবন্ধন করেন তারা। বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগ ও পরিবেশ বিষয়ক সংগঠন ‘পরিবেশ ফোরাম’র যৌথ উদ্যোগে এসব কর্মসূচির আয়োজন করা হয়।

মানববন্ধনে পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের সভাপতি সহযোগী অধ্যাপক মোহাম্মদ আমির হোসেন ভূঁইয়া বলেন, ‘যত্রতত্র স্থাপনা নির্মাণ ও ময়লা আবর্জনা ফেলে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সবুজ প্রকৃতিকে ধ্বংসের মুখে ঠেলে দেওয়া হচ্ছে। একটি অসাধু চক্র অপরিকল্পিতভাবে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন স্থানে অবৈধভাবে স্থাপনা নির্মাণ করেই যাচ্ছে। আমরা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসকে ডাস্টবিন হতে দিতে পারি না।’

অধ্যাপক মো. খবির উদ্দিন বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয় বর্জ্য ব্যবস্থাপনার নির্দেশনা না মেনে যেখানে সেখানে ময়লা-আবর্জনা ফেলা হচ্ছে। অপরিকল্পিত স্থাপনা আধুনিক জাহাঙ্গীরনগরের জন্য বড় বাঁধা।’

মানববন্ধন থেকে পরিবেশ বিনষ্টকারী এসব স্থাপনা উচ্ছেদে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে আগামী ১৯ নভেম্বর পর্যন্ত আল্টিমেটাম দেওয়া হয়েছে। অন্যথায় কঠোর আন্দোলনে নামার ঘোষণা দিয়েছেন তারা। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ক্যাফেটেরিয়ায় খাবারের মান বৃদ্ধি করে এসব দোকান বন্ধের দাবি জানান শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। প্রয়োজনে আরও ক্যাফেটেরিয়া নির্মাণের দাবিও জানান তারা।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন কলা ও মানবিকী অনুষদের ডিন অধ্যাপক মোজাম্মেল হক, পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র উপদেষ্টা সহযোগী অধ্যাপক এ কে এম রাশিদুল আলম ও দর্শন বিভাগের অধ্যাপক মোহাম্মদ কামরুল আহসান প্রমুখ।

LEAVE A REPLY