নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠনের বিষয়টি গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে বৃটেন

বৃটিশ হাইকমিশনার এলিসন ব্লেইক বলেছেন বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠনের বিষয়টি গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে বৃটেন। এটি একান্তই বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়। এনিয়ে বৃটেন বাংলাদেশকে কোনো ধরনের উপদেশ বা নির্দেশনা দেবে না। গতকাল কূটনৈতিক সংবাদদাতাদের সংগঠন (ডিক্যাব) এর সঙ্গে মতবিনিময় অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। বৃটিশ রাষ্ট্রদূত অনুষ্ঠানে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের নানা দিক, বৃটেনের ভিসা পদ্ধতি, কার্গো পরিবহনে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারসহ দুই দেশের স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ে কথা বলেন। এনিয়ে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তরও দেন তিনি। ডিক্যাবের সভাপতি আঙ্গুর নাহার মন্টির সভাপতিত্ব ও সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক পান্থ রহমান। বারিধারা বৃটিশ হাইকমিশন কমপ্লেক্সে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে হাইকমিশনারের কাছে প্রশ্ন রাখা হয় বৃটেনের ভিসা সেন্টার দিল্লি থেকে ঢাকায় ফেরত আনার কোনো চিন্তা আছে কিনা। জবাবে তিনি বলেন, বাজেট সংকোচনের কারণে ঢাকা থেকে সেন্টারটি দিল্লিতে স্থানান্তর করা হয়েছে। এখন দিল্লি সেন্টার থেকে বাংলাদেশ ও ভারতের বিভিন্ন রাজ্যের ভিসা প্রক্রিয়া করা হয়। সেন্টার স্থানান্তর হলেও বাংলাদেশিদের জন্য বৃটেনের ভিসা ইস্যুর প্রক্রিয়ায় কোনো পরিবর্তন আনা হয়নি। এক প্রশ্নের জবাবে হাইকমিশনার বলেন, হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ব্যবস্থাপনাসহ সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থার উন্নতি হয়েছে এটা আমাদের স্বীকার করতেই হবে। তবে বিমানবন্দরে কার্গো পরিবহনের যে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে তার পরিবর্তনের বিষয়ে সময়সীমা নির্ধারণ সম্ভব না। এনিয়ে বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে আমাদের আলোচনা চলছে।

LEAVE A REPLY