লালমনিরহাটের আদিতমারীতে কান্নাকাটি করায় জেহাদী হোসেন নামে ৩ মাসের এক সন্তানকে শ্বাসরোধে হত্যার পর নালায় পুঁতে রাখলেন প্রতিবন্ধী এক মা।

উপজেলার পলাশী ইউনিয়নের বড়াইবাড়ি কলতারপাড় গ্রাম থেকে বুধবার দুপুর ১২টার দিকে শিশুটির লাশ উদ্ধার করা হয়। সে কলতারপাড় গ্রামের আবু হাসান ও ইনছেনা বেগম দম্পত্তির একমাত্র ছেলে ছিল।

পলাশী ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আসাদুজ্জামান আসাদ  জানান, ভূমিহীন আবু হাসান ঢাকায় রিকশা চালান। তার একমাত্র সন্তান জেহাদীকে নিয়ে ওই বাড়িতে থাকতেন মানসিক প্রতিবন্ধী স্ত্রী ইনছেনা বেগম (২৩)। সকালে জেহাদী কান্না করায় ক্ষিপ্ত হয়ে ইনছেনা তার সন্তানের মুখে কাপড় চাপা দিয়ে শ্বাসরোধে হত্যার পর পাশের একটি নালায় পুঁতে রাখেন। কিছুক্ষণ পর ইনছেনা বেগম সন্তানের খোঁজে চিৎকার শুরু করেন। এ সময় প্রতিবেশীরা খোঁজাখুঁজির এক পর্যায়ে বাড়ির পাশের নালায় পুঁতে রাখা শিশুটির পা দু’টি দেখতে পায়। এরপর মৃত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে এবং ঘাতক মাকে বাড়িতে আটকে রেখে পুলিশে খবর দেয় গ্রামবাসী।

আদিতমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি, তদন্ত) ফিরোজ কবির জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তারা ফিরলে বিস্তারিত জানা যাবে।

LEAVE A REPLY