অবশেষে জয়ের দেখা পেল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স

ক্রীড়া ডেস্ক
বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ বিপিএলে রাজশাহী কিংসকে ৩২ রানে হারিয়েছে অবশেষে জয়ের দেখা পেল মাশরাফি বিন মুর্তজার কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। ৬ ম্যাচে এটি কুমিল্লার প্রথম জয়।

শনিবার জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে টসে জয়লাভ করেন রাজশাহীর অধিনায়ক ড্যারেন স্যামি। তিনি প্রথমে কুমিল্লাকে ব্যাট করার আমন্ত্রণ জানান। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৫২ রান সংগ্রহ করে কুমিল্লা। জবাবে ১৯ ওভার খেলে ১২০ রানে অলআউট হয় রাজশাহী।

এবারের আসরে এখনও জয়ের দেখা পায়নি গত আসরের চ্যাম্পিয়ন কুমিল্লা। তাই তো একটি জয়ের জন্য মরিয়া দলটি।

ওপেনিং ব্যাটসম্যানে পরিবর্তন আনা হয়। ব্যাট করতে নামেন খালিদ লতিফ ও নাজমুল হোসাইন শান্ত। তবে তাতেও কাজ হয়নি। লতিফ মাত্র ৬ রান করে ফরহাদ রেজার বলে সাজঘরে ফেরেন।

এরপর দ্রুতই ফিরে যান আগের ম্যাচে ফিফটি করা আহমেদ শেহজাদ। তিনি ১১ রান করে মিরাজের বলে জুনায়েদ সিদ্দিকীর হাতে ধরা পড়েন। ইমরুল কায়েস এবং শান্ত মিলে ৪৩ রানের জুটি গড়েন। তবে দারুণ খেলতে থাকা শান্তকে ফেরান স্যামি।

শান্ত ৪১ রান করেন। তবে তিনি বল খেলেছেন ৪০টি। দারুণ খেলতে থাকা ইমরুল কায়েস ৩৪ রান করে রান আউটের শিকার হন। শেষ দিকে রায়ান টেন ডেশকাটের অপরাজিত ১৯ এবং সোহেল তানভীরের ১৫ রানে ভর করে ১৫২ রান সংগ্রহ করে কুমিল্লা।

জবাব দিতে নেমে ওপেনিং জুটিতে রাজশাহী সংগ্রহ করে ২৭ রান। ১০ রান করে আউট হন জুনায়েদ সিদ্দিকী। পরের বলেই সাব্বির রহমানের উইকেট তুলে নেন সোহেল তানভীর।

এরপর উমর আকমল ও নুরুল হাসান সোহানের উইকেট দুটি তুলে নেন মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন। আজও ব্যর্থ হয়েছেন আকমল ও সোহান। একপ্রান্ত আগলে রেখে খেলছিলেন মুমিনুল হক। কিন্তু তিনিও ৫৩ রান করে টেন ডেশকাটের বলে আউট হন।

পরের ওভারেই অধিনায়ক ড্যারেন স্যামি রান আউটের শিকার হন। সামিত প্যাটেলও আজ ব্যর্থ। তিনি ১২ রান করে মাশরাফির বলে বোল্ড হন।

শেষের দিকের ব্যাটসম্যানরা কুমিল্লার বোলারদের সামনে দাঁড়াতেই পারেনি। মিরাজ ও ফরহাদ রেজার উইকেট দুটিও শিকার করেন তানভীর। সামির উইকেটটি লাভ করেন সাইফুদ্দিন।

LEAVE A REPLY