আন্তর্জাতিক ডেস্ক
পাকিস্তানের জলসীমায় ভারতীয় একটি সাবমেরিনের প্রবেশ রুখে দেয়ার দাবি করেছে পাকিস্তানের নৌবাহিনী। তবে ভারতীয় নৌবাহিনী পাকিস্তানের এ দাবিকে ‘মনগড়া’ বলে দাবি করেছে।

পাক নৌবাহিনীর এক বিবৃতিতে শুক্রবার বলা হয়েছে, ‘ভারতীয় সাবমেরিন শনাক্ত করে তা পাকিস্তানি জলসীমায় প্রবেশে বাধা দিয়ে পাক নৌবাহিনী আবারও তাদের নজরদারি ও কর্মদক্ষতার প্রমাণ রাখল।’

বিবৃতিতে পাক নৌবাহিনী বলেছে, ‘১৬ নভেম্বর পাকিস্তানের দক্ষিণ উপকূলে সন্দেহজনক সাবমেরিনটিকে শনাক্ত করা হয়। শনাক্তকরণ থেকে বাঁচতে সাবমেরিনটি আপ্রাণ চেষ্টা চালায়। তবে তা সত্ত্বেও পাকিস্তানি নৌবহর তা ক্রমাগত অনুসরণ করতে থাকে এবং আমাদের জলসীমা থেকে বের করে দেয়।’

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, ‘গভীর সমুদ্রে ভারতীয় নৌবাহিনীর সাবমেরিন শনাক্তকরণে শক্তিশালী লড়াই ও অব্যাহত নজরদারি কেবল পাক নৌবাহিনীর সাবমেরিনবিরোধী উচ্চপর্যায়ের সক্ষমতার কথাই বলে না বরং সমুদ্রসীমা রক্ষায় এর অঙ্গীকারকেও প্রতিফলিত করে।’

বিবৃতিতে বলা হয়, ‘সমুদ্রসীমা রক্ষায় পাকিস্তান নৌবাহিনীর উঁচু পর্যায়ের প্রস্তুতি ও সতর্কতা অব্যাহত রয়েছে।’

তবে পাকিস্তানের এ দাবিকে ভারতীয় নৌবাহিনী শুক্রবার ‘ভুয়ো’ বলে উড়িয়ে দিয়েছে।

ভারতীয় নৌবাহিনীর তরফে এও বলা হয়েছে, সীমান্তে গোলাগুলি বর্ষণে প্রচুর ভারতীয় জওয়ানের মৃত্যু হয়েছে বলে পাক সেনাবাহিনীর তরফে যে দাবি করা হয়েছে সেটাও ‘একেবারেই মনগড়া’।

গত কয়েক মাস ধরে কাশ্মীর সীমান্তে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। দু’দেশের সীমান্তরক্ষীদের গুলিতে বহু প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে।

সূত্র: দ্য ডন, এনডিটিভি

LEAVE A REPLY