সোসাইটিনিউজ ডেস্ক

অফিসের ডেস্কে দীর্ঘ সময় বসে থাকতে থাকতে ঘুম আসছে? যাঁরা কাজের চাপে অস্থির থাকেন, সময়মতো খাবার খেতে পারেন না, তাঁদের একপর্যায়ে ঝিমুনি আসতে পারে। ক্লান্তি চেপে বসতে পারে।

আমেরিকার কর্মচারী-ভিত্তিক স্বাস্থ্য সংস্থা সম্প্রতি ৩টি প্রতিষ্ঠানের ১১৩৯ কর্মচারীর উপর একটি গবেষণা চালিয়েছেন। গবেষক Jennifer Turgiss খুঁজে পেয়েছেন মূলত চারটি কারণে মানুষ রাতে শান্তিমত ঘুমাতে পারে না। তা হল চিন্তা বা চাপ, শারীরিক অস্বস্তি, পরিবেশগত ব্যাঘাত এবং বিভিন্ন মানসিক সমস্যা।
National Sleep Foundation (NSF)

অন্য একটি রিপোর্টে উল্লেখ করে যে ২৯ ভাগ মানুষ কাজের সময় ঘুমিয়ে পড়িয়ে বা কাজের সময় প্রচণ্ড তন্দ্রা বোধ করে। আবার ৩৬ ভাগ মানুষ গাড়ি চালানোর সময় ঘুম সংক্রান্ত সমস্যায় পড়ে।
আসুন কেন মানুষ রাতে ঠিকমত ঘুমাতে পারে না, এ সংক্রান্ত গবেষণার ফলাফল জেনে নেই।
৮৫.২ % মানুষ বলেছেন তাদের ঘরের তাপমাত্রা খুব বেশি অথবা কম কম ছিল যার ফলে ঠিকমত ঘুমানো সম্ভব না।
৭১.৯% মানুষ বলেছেন তারা তাদের সঙ্গীর ঘুমগত সমস্যার কারণে ঠিকমত ঘুমাতে পারেন নি।
৬৮.৬% মানুষ উল্লেখ করেছেন শব্দগত সমস্যার কথা।
৫২.8% মানুষ দায়ী করেছে উজ্জ্বল আলোকে।
৪০% মানুষকে সমস্যায় ফেলেছে তাদের ম্যাট্ট্রেস বা গদি।
৩৫.৯% মানুষ বলেছেন তাদের সন্তানেরা ঘুমে সমস্যা সৃষ্টি করেছে।
১০.২% ভাগ মানুষ উল্লেখ করেছেন তাদের স্বাস্থ্যগত অবস্থা ভালো ছিল না।

কর্মক্ষেত্রে ঘুমিয়ে পড়া খুবই বিব্রতকর একটি অভিজ্ঞতা। রাতে নিয়মিত ঘুম হলে, এই সমস্যা কাটিয়ে ওঠা সম্ভব। তবে অফিসে সক্রিয় থাকতে ও ঝিমুনি তাড়াতে বিশেষ কয়েকটি খাবার খাওয়া যায়। টিএনএনে প্রকাশিত প্রতিবেদনে এসব খাবারের তালিকা দেওয়া হয়েছে।

ডিম
যাঁরা দীর্ঘ সময় বসে কাজ করেন, তাঁরা ভিটামিন, খনিজ ও প্রোটিন আছে, এমন খাবার খাবেন। এ হিসেবে ডিম খাদ্যতালিকায় থাকা চাই।


হোল গ্রেইন ব্রেড

এ ধরনের রুটিতে ফাইবার, ভিটামিন ই ও বি কমপ্লেক্স থাকে বলে অনেকক্ষণ শরীরে শক্তি জোগাতে পারে। ঝিমুনি দূর করতে হোল গ্রেইন ব্রেড খেতে পারেন।

 

কিউই ফল
কিউই (একধরনের রসাল ফল) ফলের জুস বা কিউই সালাদ দুপুরের খাবারের সঙ্গে রাখুন। এতে ঘুম ঘুম ভাব দূর হবে। এতে যে কপার ও ভিটামিন সি আছে, তা দীর্ঘক্ষণ সক্রিয় থাকতে সাহায্য করবে।

 

আঙুর
শক্তি জোগানো ফল হিসেবে আঙুর সুপরিচিত। এতে ভিটামিন সি, ফাইটোনিউট্রিয়েন্ট ও ফোলেট নামের উপাদান আছে, যা শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় এবং দ্রুত শরীরে শক্তি জোগাতে পারে।


তিসি বীজ

খাবারে নিয়মিত তিসি বীজ রাখলে তা শরীরে শক্তি উৎপাদন করে এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। এতে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড আছে। তিসি গুঁড়া করে কৌটায় রাখতে পারেন, যা খাবারের ওপর ছিটিয়ে দিলে স্বাদ বাড়বে এবং স্বাস্থ্যের জন্য উপকার পাবেন।


বেরি

অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, ফাইবার ও ভিটামিনে ভরপুর বেরি (স্ট্রবেরি-জাতীয় ফল)। সারা দিন শারীরিক ও মানসিকভাবে সক্রিয় থাকতে খেতে হবে। পুষ্টিকর খাবার হিসেবে এতে ক্যালরি কম থাকে এবং ওজন কমাতে সাহায্য করে।


প্রোটিন বার

দিনের ক্লান্তি দূর করতে বা কাজের সময় ঝিমুনি তাড়িয়ে দ্রুত সক্রিয় করে তুলতে প্রোটিন চকলেট দারুণ ভূমিকা রাখতে পারে। বাড়ি ফেরার আগে এ রকম প্রোটিনসমৃদ্ধ খাবার খেলে ক্ষুধা কম পাবে আর শরীর-মন চনমনে হয়ে উঠবে।

LEAVE A REPLY