ফিদেল কাস্ত্রোর মৃত্যুতে বিশ্বনেতাদের শোক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

শুক্রবার (২৫ নভেম্বর) রাতে ৯০ বছর বয়সী কিউবার বিপ্লবী নেতা ফিদেল কাস্ত্রোর জীবনাবসান হয়েছে বলে রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে ঘোষণা দেন তার ভাই প্রেসিডেন্ট রাউল কাস্ত্রো। শনিবার  এ ঘোষণা দেন তিনি। এরপর আন্তর্জাতিক অঙ্গনে নেমে আসে শোকের ছায়া। কিংবদন্তী এ নেতার মৃত্যুতে বিশ্বনেতারা শোক প্রকাশ করে একের পর এক টুইট করতে থাকেন।

ফিদেল কাস্ত্রোর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো, মেক্সিকান প্রেসিডেন্ট এনরিক পেনা নিয়েটো, ইকুয়েডরের প্রেসিডেন্ট রাফায়েল কোরিয়া, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিসহ বিশ্বনেতাদের অনেকে শোক জানিয়ে টুইট করেছেন।

বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কাস্ত্রোর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। এক শোক বার্তায় তিনি বলেন, ‘ফিদেল কাস্ত্রোর মৃত্যুতে বিশ্ব রাজনীতিতে যে শূন্যতা সৃষ্টি হবে তা কখনোই পূর্ণ হবে না। বিশ্বে শোষিত মানুষের অধিকার পুনরুদ্ধারে তাঁর সংগ্রামী অবদান বিশ্বের মানুষ চিরকাল স্মরণ রাখবে।’

প্রধানমন্ত্রীও আলাদা এক শোকবার্তায় শোক জানিয়েছেন বলে উল্লেখ করেছে বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থা।

কাস্ত্রোর মৃত্যুতে শোক জানিয়ে ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো তার টুইটে লিখেছেন, ‘বিশ্বের সকল বিপ্লবীদের বলছি, আমাদেরকে তার কাজ এবং তার দেশ, সমাজতন্ত্র, স্বাধীনতার পতাকাকে ধারণ করে এগিয়ে যেতে হবে।’
মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট এনরিক পেনা নিয়েটো তার টুইটে লিখেছেন, ‘কিউবার বিপ্লবের নেতা এবং বিংশ শতাব্দীর প্রতীক ফিদেল কাস্ত্রোর মৃত্যুতে আমি শোকাহত।’
ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি টুইটারে কাস্ত্রোকে বিংশ শতাব্দীর অন্যতম আইকন এবং একজন বড় বন্ধু হিসেবেও উল্লেখ করেছেন তিনি। ভারতের রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জিও কাস্ত্রোর মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন।
ইকুয়েডরের প্রেসিডেন্ট রাফায়েল কোরিয়া লিখেছেন, ‘তিনি মহানদের একজন ছিলেন। ফিদেল মারা গেছেন। দীর্ঘজীবী হও কিউবা! দীর্ঘজীবী হও ল্যাটিন আমেরিকা!’

দক্ষিণ আফ্রিকার প্রয়াত বর্ণবাদবিরোধী কিংবদন্তী নেতা নেলসন ম্যান্ডেলার ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে কিউবার সরকার ও জনগণের প্রতি শোকবার্তা পাঠানো হয়েছে।

সাবেক সোভিয়েত নেতা মিখাইল গর্ভাচেভ কিউবাকে শক্তিশালী করার জন্য কাস্ত্রোর প্রশংসা করেন।
স্পেনের সরকারের পক্ষ থেকেও কাস্ত্রোর মৃত্যুতে শোক জানিয়ে বিবৃতি দেওয়া হয়েছে।  সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান, ইন্ডিপেনডেন্ট, বাসস

LEAVE A REPLY