রাজশাহীর বিপক্ষে রংপুরের লজ্জাজনক হার

ক্রীড়া ডেস্ক
বিপিএলে মেহেদী হাসান মিরাজের অলরাউন্ড নৈপুণ্যে রংপুর রাইডার্সকে ৪৯ হারিয়েছে রাজশাহী কিংস। রাজশাহীর দেয়া ১২৯ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ৭৯ রানে অলাউট হয় রংপুর।

সোমবার দিনের একমাত্র খেলায় টসে জয়লাভ করে প্রথমে ব্যাট করতে নামে রাজশাহী কিংস। তবে অধিনায়কের সিদ্ধান্তের যৌক্তিকতা প্রমাণে ব্যর্থ হন ওপেনার ও টপ অর্ডারের ব্যাটসম্যানরা।

তবে ব্যাট হাতে জ্বলে ওঠেন ফরহাদ রেজা এবং মেহেদী হাসান মিরাজ। তাদের ব্যাটে ভর করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১২৮ রান সংগ্রহ করে রাজশাহী কিংস।

ব্যাট করতে নেমে দলীয় ও ব্যক্তিগত ২ রান করে রুবেল হোসেনের বলে আউট হন জুনাযেদ সিদ্দিক। ব্যক্তিগত ৯ রান করে আরাফাত সানির বলে সাজঘরে ফেরেন মুমিনুল হক।

দ্রুতই ফিরে যান সামিত প্যাটেল, আবুল হাসান রাজু, ওমর আকমল এবং ড্যারেন স্যামি। এরমধ্যে প্যাটেল এবং রাজুর উইকেট তুলে নেন সানি। আকমলের উইকেট শিকার করেন আফ্রিদি। ড্যারেন স্যামিকে ফেরান ডওসন।

রাজশাহীর হয়ে আশার আলো দেখাচ্ছিলেন সাব্বির। কিন্তু তিনিও ১৬ রান করে আফ্রিদির বলে আউট হন।

৪৩ রানের মধ্যে ৭ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায় রাজশাহী কিংস। সেখান থেকে দলকে টেনে তোলেন ফরহাদ রেজা এবং মেহেদী হাসান মিরাজ। তাদের জুটিতে আসে ৮৫ রান। মিরাজ ৩৩ বলে ৪১ এবং রেজা ৩২ বলে ৪৪ রানে অপরাজিত থাকেন।

১২৯ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে রাজশাহী কিংসের বোলিং তোপে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে রংপুর রাইডার্স। দলীয় ১৫ রানে সৌম্যকে ফেরান মিরাজ। সৌম্য মাত্র ১ রান করেন।

এরপর মোহাম্মদ শেহজাদকে ফেরান সামি। শেহজাদ ১২ রান করেন। নাসির জামশেদকে ফিরিয়ে নিজের দ্বিতীয় উইকেট তুলে নেন মিরাজ। জামশেদ মাত্র ১ রান করেন। নাজমুল হাসান অপুর বলে লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়েন রংপুরের অধিনায়ক লিয়াম ডওসন। ডওসন মাত্র ২ রান করেন।

নাজমুলের দ্বিতীয় শিকার বুম বুম আফ্রিদি। আফ্রিদি ৭ রান করে স্ট্যাম্পিং হন। দারুণ খেলতে থাকা মিথুন আলীকে ফেরান সামিত প্যাটেল। মিথুন ২০ রান করেন।

জিয়াউর রহমানকে ফিরিয়ে নিজের তৃতীয় উইকেট তুলে নিয়ে রংপুরকে চাপে ফেলে দেন নাজমুল। জিয়া ৫ রান করেন। এরপর সোহাগ গাজীকে ফেরান আবুল হাসান রাজু। গাজী ৮ রান করেন। আরাফাত সানি এবং মুক্তার আলীর উইকেট দুটিও শিকার করেন রাজু।

নাজমুল হাসান অপু ৪ ওভারে ৮ রান দিয়ে ৩ উইকেট তুলে নেন। মিরাজ ২ ওভারে ১২ রান দিয়ে ২টি এবং রাজু ২ দশমিক ৪ ওভারে ১১ রান দিয়ে ৩টি উইকেট শিকার করেন।

রংপুর রাইডার্স, রাজশাহী কিংস এবং চিটাগাং ভাইকিংসের পয়েন্ট সমান। ৯ ম্যাচে তিন দলেরই ৫টি করে জয়।

LEAVE A REPLY