আন্তর্জাতিক ডেস্ক

তেলের দাম বাড়ানোর জন্য উৎপাদন কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে তেল উৎপাদনকারী দেশগুলোর সংগঠন ওপেক। আর এতেই  বিশ্ববাজারে তেলের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। গত আট বছরের মধ্যে প্রথমবারের মতো উৎপাদন কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সংগঠনটি।

ওপেকের প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ বিন সালেহ আল-সাদা বলেন, “আগামী জানুয়ারি মাস থেকে প্রতিমাসে ১.২ মিলিয়ন ব্যারেল উৎপাদন কমানো হবে। গত দুই বছর ধরে বাজারে তেলের সরবরাহ বেশি থাকায় দাম বেশ পড়ে গেছে। ওপেকভূক্ত এবং নন-ওপেকভূক্ত দেশগুলো নিজেদের এবং বিশ্বে অর্থনীতির স্বার্থে তেলের উৎপাদন কামানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে।”

নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ওপেকভূক্ত দেশগুলোর উৎপাদন কমানোর পাশাপাশি ওপেকভূক্ত নয় এমন দেশগুলো প্রতিমাসে ছয় লাখ ব্যারেল তেল উৎপাদন কমাবে। তেল উৎপাদন কমানোর বিষয়ে সৌদি আরব এবং ইরানের মধ্যকার মতপার্থক্য ঐকমত্য বাস্তবায়ন নিয়ে সংশয় তৈরি করেছিল। কারণ ইরান এ মুহূর্তে তেলের উৎপাদন কমাতে চায় না। অন্যদিকে তেলের উৎপাদন কমানোর ক্ষেত্রে সৌদি আরবও সিংহভাগ দায়িত্ব নিতে অনাগ্রহী। ইরানের ভাষ্য বহু বছর অর্থনৈতিক অবরোধ থাকার কারণে তাদের তেলের উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রায় পৌঁছায়নি। তবে শেষ পর্যন্ত তারা সবাই একটি সিদ্ধান্তে পৌঁছতে পেরেছে।

তবে কোন দেশগুলো উৎপাদন কমাবে সে বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানাননি ওপেকের প্রেসিডেন্ট। তবে রাশিয়া তেলের উৎপাদন কমাবে বলে তিনি জানিয়েছেন। খবর বিবিসি।

LEAVE A REPLY