ঘর সাজানোর গুরুত্বপূর্ণ অংশ হচ্ছে পর্দা। আপনার ঘরকে বাইরের ধুলোবালি আর রোদ থেকে সুরক্ষিত রাখতে এবং ঘরের সৌন্দর্য বাড়াতে পর্দার বিকল্প নেই। ঘর সাজাতে আমাদের চিন্তার শেষ নেই। বড়দের থাকার ঘর থেকে শুরু করে পরিবারের সবচেয়ে কনিষ্ঠ সদস্যের ঘরকে সাজাতে গিয়ে নানাভাবে চিন্তা ভাবনা করতে হয়। তবে কোন ঘরে কেমন পর্দা ঘরকে সাজিয়ে তুলবে তা খুঁজে বের করা কঠিন। একই রঙের পর্দায় যেমন ঘরের সৌন্দর্য ফুটে ওঠে না তেমনই ঘরের রঙের সঙ্গে মানিয়ে পর্দা ব্যবহার না করলে ঘরের সৌন্দর্য ফুটে উঠে না। তাই ঘরকে রঙের ছটায় ফুটিয়ে তুলতে পর্দার বিকল্প নেই। চলুন জেনে নেই কোন ঘরে কেমন পর্দা মানানসই।

বসার ঘর এমন একটি জায়গা যেখানে বাইরের মানুষের আনাগোনা সব সময়ই থাকে। তাই বসার ঘরের পর্দা ঘরের দেয়ালের রঙের সঙ্গে মিলিয়ে রাখতে পারেন। কাপড় পছন্দের ক্ষেত্রে নির্বাচন করতে পারেন ভেলভেট, সিল্ক, সার্টিন, জর্জেট কিংবা কাতান কাপড়ের পর্দা। বসার ঘরের পর্দা মেঝে পর্যন্ত বড় হলে দেখতে সুন্দর লাগে। খাটো পর্দা ঘরের সাথে মানায় না তাই বসার ঘরে খাটো পর্দা না রাখাই ভালো। বসার ঘরের পর্দার রঙ নির্বাচন করতে পারেন নীল, গোলাপি, হালকা সবুজ, চকলেট কিংবা বাদামী। তবে একরঙ্গা পর্দার পাশাপাশি চেক প্রিন্টের পর্দাও ব্যবহার করতে পারেন।

শোবার ঘরের ক্ষেত্রে আপনি পছন্দ করতে পারেন কিছুটা ভারী পর্দা। এই ক্ষেত্রে মোটা কাপড়ের পর্দা ব্যবহার করাই ভালো। রঙের ক্ষেত্রে নির্বাচন করতে পারেন গোলাপি, হালহা সবুজ আর অফ হোয়াইট। কাপড়ের ক্ষেত্রে নিতে পারেন খাদি, সার্টিন এবং ভেলভেট কাপড়ের। পর্দার ক্ষেত্রে পছন্দ করতে পারেন কুচি সিস্টেম কিংবা রিং সিস্টেমের পর্দা।
শিশুদের রুমের ক্ষেত্রে আপনি পছন্দ করতে পারন কিছুটা গাঢ় রঙ। ছেলে বাচ্চাদের ক্ষেত্রে নীল আর মেয়েদের ক্ষেত্রে পছন্দের তালিকায় রাখতে পারেন গোলাপি। তবে আপনার শিশুর পছন্দের দিকে আগে নজর দিন। নানা কার্টুন চরিত্র কিংবা সিনবাদ সাথে বানর কিংবা সিনড্রেলার ছবি যুক্ত পর্দা রাখতে পারেন আপনার শিশুর ঘরে।

পর্দা কেবল ঘর সাজানোর জন্যই নয়। এটি আপনার রুচি থেকে শুরু করে ব্যক্তিত্ব এবং আপনার পছন্দকে তুলে ধরে মানুষের কাছে। তাই পর্দা নির্বাচনের ক্ষেত্রে মানানসই রঙ নির্বাচন করুন এবং আপনার ঘরকে সাজিয়ে তুলুন আপনার স্বপ্নের মতো করে।

LEAVE A REPLY