আসন্ন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে প্রচারণার কৌশল নির্ধারণ করেছে বিএনপি। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে, নির্বাচনি প্রচারণায় আওয়ামী লীগের প্রার্থী সেলিনা হায়াৎ আইভী ও সাংসদ শামীম ওসমান এবং ওসমান পরিবারকে ব্যক্তিগত আক্রমণ থেকে বিরত থাকা। এক্ষেত্রে সরকারের বিরুদ্ধে ‘গণতন্ত্রহরণের’ অভিযোগকেই প্রচারণার কেন্দ্রবিন্দু করতে চায় বিএনপি।

শনিবার রাতে দলের সিনিয়র নেতাদের সঙ্গে খালেদা জিয়ার বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। বৈঠকে অংশ নেওয়া সিনিয়র চার নেতা বাংলা ট্রিবিউনকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জানতে চাইলে খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য সাংবাদিক সঞ্জীব চৌধুরী বলেন, ‘প্রচারণায় যেন ব্যক্তিগত আক্রমণ না করা হয়, এ নিয়ে আলোচনা হয়েছে। নাসিক নির্বাচনে শেষ পর্যন্ত লড়াই করে যাওয়ার বিষয়ে দলের প্রধান তাগাদা দিয়েছেন।’

বৈঠকে অংশ নেওয়া সিনিয়র এক নেতা জানান, শনিবারের সোয়া এক ঘন্টার বৈঠকে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনই মুখ্য আলোচনা ছিল। এর বাইরে কোনও বিষয় নিয়ে তেমন আলোচনা হয়নি। এই বৈঠকে উপদেষ্টামণ্ডলীর ১৮ জন, ভাইস চেয়ারম্যান ৯ জন ও যুগ্ম মহাসচিবরা উপস্থিত ছিলেন। পাশাপাশি মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচন উপলক্ষে বিএনপির তদারকি কমিটির সমন্বয়ক স্থায়ী কমিটির সদস্য বাবু গয়েশ্বর চন্দ্র রায় উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকসূত্র জানায়, বৈঠকে সবার বক্তব্যের শেষে খালেদা জিয়া উপদেশমূলক বক্তব্য দেন। নির্বাচনে শেষ পর্যন্ত মাটি কামড়ে পড়ে থাকার জন্যে জোর তাগিদ দেন তিনি। বৈঠকে বিএনপি নেতারা আশাবাদ প্রকাশ করেন, নাসিক নির্বাচন ন্যূনতম নিরপেক্ষ হলে দলীয় প্রার্থী সাখাওয়াত হোসেন বিপুল ভোটে বিজয়ী হবেন।

বৈঠকে অংশ নেওয়া একজন ভাইস-চেয়ারম্যান জানান, নাসিক নির্বাচনের প্রচারণায় বড় শোডাউন বা অনেক নেতার সমাগম করতে অনুৎসাহিত করা হয়েছে। কেবলমাত্র খালেদা জিয়া প্রচারণায় অংশ নিলেই বড় শোডাউন করার বিষয়ে মত দেওয়া হয়। এক্ষেত্রে এখনও পর্যন্ত এ সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হয়নি বলে জানান উপদেষ্টা সঞ্জীব চৌধুরী।

নাসিকে মুসলিম সম্প্রদায়ের বাইরে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের একটি বড় অংশের ভোট রয়েছে। এক্ষেত্রে বিএনপির হিন্দুধর্মীয় নেতাদের প্রচারণায় যেতে বলা হয়েছে। বড় আয়োজন না করে ভোটারদের ঘরে ঘরে গিয়ে ভোট চাওয়ার বিষয়ে জোর দিয়েছেন খালেদা জিয়া।

জানতে চাইলে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেন,‘আজকের আলোচনা নাসিক নির্বাচনকেন্দ্রিক ছিল। সিরিয়াসলি পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। এই নির্বাচনকে বিএনপি সিরিয়াসলি গ্রহণ করেছে। যেভাবে কাজ করলে নির্বাচনে বিজয়ী হওয়া যাবে, এ নিয়েই আলোচনা হয়েছে বৈঠকে।

LEAVE A REPLY