আন্তর্জাতিক ডেস্ক

সিরিয়ার সরকারি বাহিনী শুক্রবার পূর্ব আলেপ্পোর তারিক আল-বাব নামের একটি জেলা পুনর্দখল করেছে। প্রায় চার বছর পর এর নিয়ন্ত্রণ নিতে পারল সরকারি বাহিনী। এর ফলে পূর্ব আলেপ্পোর প্রায় দুই-তৃতীয়াংশের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নিয়েছে তারা। এখন জাতিসংঘ দ্রুততম সময়ের মধ্যে সেখানকার শিশুদের কাছে জরুরি ত্রাণ পৌঁছে দেওয়ার চেষ্টা করছে। পর্যবেক্ষক সংস্থা সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস এমনটি জানিয়েছে।

পর্যবেক্ষক সংস্থাটি জানিয়েছে, শুক্রবারের সংঘর্ষে দুই পক্ষের ১০ জন করে যোদ্ধা হতাহত হন। জেলাটির নিয়ন্ত্রণ ফিরে পাওয়ায় এখন সরকারি বাহিনীর দখলকৃত এলাকার সঙ্গে আলেপ্পোর বিমানবন্দরে যাওয়ার পথ তৈরি হলো।

সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটসের প্রধান রামি আবদেল রহমান বলেছেন, সরকারি বাহিনী পূর্ব আলেপ্পোর অর্ধেকের বেশি এলাকায় তাদের নিয়ন্ত্রণ সুসংহত করেছে এবং এখন বিদ্রোহীদের কোণঠাসা করার চেষ্টা করছে।
বর্তমানে পূর্ব আলেপ্পো থেকে হাজার হাজার মানুষ জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সরকারি বাহিনীনিয়ন্ত্রিত এলাকায় চলে আসছে। এ পর্যন্ত ৫০ হাজারেরও বেশি মানুষ এভাবে নিরাপদ এলাকায় চলে এসেছে। জাতিসংঘের হিসাবে এর মধ্যে প্রায় ২০ হাজারই হচ্ছে শিশু। এখন এদের তাৎক্ষণিক ও দীর্ঘমেয়াদি সহায়তা দেওয়াই সবচেয়ে কঠিন কাজ বলে মন্তব্য করেছে সংস্থাটি।

একসময় সিরিয়ার বাণিজ্যিক কেন্দ্র ছিল আলেপ্পো। গত ১৫ নভেম্বর থেকে প্রেসিডেন্ট বাসার আল-আসাদের বাহিনী সেখানে অভিযান শুরু করেছিল। এরপর সহজেই একের পর এক এলাকা সরকারি বাহিনীর দখলে আসতে থাকে। বর্তমানে প্রায় আড়াই লাখ মানুষ পূর্ব আলেপ্পোয় আটকে আছে। এরই মধ্যে রাশিয়া ওই এলাকায় মানবিক সাহায্য পৌঁছে দেওয়ার জন্য চারটি বিশেষ পথ চালু করার আহ্বান জানিয়েছে। এ ছাড়া পূর্ব আলেপ্পোর যেসব অধিবাসী ওই এলাকা ছেড়ে যেতে চান, তাঁরাও নিরাপদে চলাচলের জন্য পথগুলো ব্যবহার করতে পারবেন।

LEAVE A REPLY