নোট বাতিল-কাণ্ডে খুচরো টাকার অভাব চলছে ভারতজুড়ে । পুরোনো নোট পরিবর্তনের জন্য ব্যাংকগুলোতে হুমড়ি খেয়ে পড়েছেন দেশবাসী। ব্যাংকে অনেক কষ্টে নোট মিললেও মিলছে না খুচরা। এ কারণে দেশটিতে নগদ অর্থের বদলে ডেবিট-ক্রেডিট কার্ড ও অ্যাপভিত্তিক পেমেন্ট সিস্টেমের মাধ্যমে কেনাকাটা বেড়ে গেছে।

তবে সবকিছুর বিল কি আর এভাবে দেওয়া যায়? ফলে বাধ্য হয়েই অনেকে অনেক রকম ভাবে মানিয়ে নিচ্ছেন। সেরকমই এক ঘটনা ঘটেছে ভারতের তামিলনাড়ুর মাদুরাইয়ে। সেখানে এক ব্যক্তি পাবলিক টয়লেটে শৌচকর্মের পর বিল হয় পাঁচ রুপি। কিন্তু শৌচকর্ম শেষে এই ব্যক্তি বাইরে এসে দেখলেন, পকেটে ফুটো পয়সাও নেই। অমনি পকেট থেকে সাঁই করে বের করলেন চেকবই। ‘পাবলিক টয়লেট মাদুরাই’–এর নামে পাঁচ রুপি লিখে তাতে সই করে বিল সংগ্রহকারীর টেবিলে রেখে চলে গেলেন। খুচরা কিংবা নোট, কিছুই না থাকুক কাছে, তবু বিল তো দেওয়া হলো !

এনডিটিভি অনলাইন বলছে, ২ ডিসেম্বর বিআরএম মুরালিধরন নামের একজন ফেসবুক ব্যবহারকারী পাবলিক টয়লেটে দেওয়া ওই চেকের ছবি শেয়ার করেন। এরপরই এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগের ওয়েবসাইটগুলোতে তর্ক-বিতর্কের ঝড় ওঠে।

উল্লেখ্য, গত ৮ নভেম্বর দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ৫০০ ও ১০০০ রুপির নোট বাতিল ঘোষণা করেন।

LEAVE A REPLY