জার্মানিতে বোরখা নিষিদ্ধ করার আহ্বান অ্যাঞ্জেলা মার্কেলের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
উদার অভিবাসন নীতিতে ঘরে-বাইরে নানা সমালোচনার মুখে জার্মানিতে বোরখা নিষিদ্ধ করার আহ্বান জানালেন চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মার্কেল।

মঙ্গলবার তাঁর দল ক্রিস্টিয়ান ডেমোক্র্যাটিক ইউনিয়নের (সিডিইউ) কংগ্রেসে মার্কেল বলেন, ‘যেখানে যতটা সম্ভব বোরখা নিষিদ্ধ করা উচিত। শরিয়ত আইনের ঊর্ধ্বে জার্মানির আইন। ‘

মার্কেলের কথায়, ‘যেখানে যেখানে আইনগতভাবে সম্ভব, সেই সব জায়গায় পুরোপুরি মুখ ঢেকে রাখা নিষিদ্ধ করা উচিত। পুরোপুরি মুখ ঢেকে রাখা জার্মান সমাজের চিন্তা-ভবনা, সংস্কৃতির সঙ্গে মেলে না। ‘

কথাটি শেষ হতেই হাততালিতে ফেটে পড়ে গোটা স্টেডিয়াম। শরণার্থী ইস্যুতে বিতর্কে থাকা মার্কেলের এই ঘোষণা ২০১৭-র নির্বাচনের আগে জনপ্রিয়তা পুনরুদ্ধারের চেষ্টা বলেই মনে করছে আন্তার্জাতিক মহল। চতুর্থবার চ্যান্সেলর পদের দৌঁড়ে থাকা মার্কেল গত মাসেই স্বীকার করেছেন, এবারের নির্বাচনে লড়াই অন্যবারের চেয়ে কঠিন হবে।

সিরিয়ার শরণার্থীদের জন্য জার্মানির দরজা খুলে দেওয়ার পর থেকেই ইউরোপীয় ইউনিয়ন তো বটেই, দেশেও একটা বড়সড় অংশ মার্কেলের অভিবাসন নীতির বিরোধিতা করছে।

গত বছরই হাঙ্গেরিতে আটকে থাকা ৮ লাখ ৯০ হাজার শরণার্থী আশ্রয় নিয়েছে জার্মানিতে। ওই ঘটনার পুনরাবৃত্তি হওয়া উচিত নয় বলেও দাবি মার্কেলের। বলেছেন, ‘এটাই আমাদের, আমার দলের ও আমার রাজনৈতিক লক্ষ্য। ‘

২০১৭-র নির্বানে চ্যান্সেলর পদে লড়াইয়ের আগে অ্যাঞ্জেলা মার্কেলকে সিডিইউ-র প্রেসিডেন্ট পদে নির্বাচিত হতে হবে। জার্মান সংবাদমাধ্যম সূত্রের খবর, দল এবারও মার্কেলকেই প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচিত করছে।

সেক্ষেত্রে মার্কেলের এই মুহূর্তে ‘গলার কাঁটা’ উদার অভিবাসন নীতি। বোরখা নিষিদ্ধের আহ্বান সেই কাঁটা তুলতে পারবে কিনা, তার জবাব মিলবে আগামী বছর।

সূত্র: এই সময়

LEAVE A REPLY