আন্তর্জাতিক ডেস্ক
ইন্দোনেশিয়ায় আঘাত হানা একটি শক্তিশালী ভূমিকম্পে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৫৪তে দাঁড়িয়েছে। দেশটির সেনাবাহিনীর প্রধান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বুধবার স্থানীয় সময় সকাল ৫টার দিকে আচেহ প্রদেশে ভূমিকম্পটি আঘাত হানে। রিখটার স্কেলে ভূমিকম্পটির মাত্রা ছিল ৬ দশমিক ৫। ভূমিকম্পের আঘাতে বাড়ি-ঘর, দোকান ধসে পড়ায় বহু মানুষ আহত হয়েছে।

ভূমিকম্পের উপকেন্দ্রের কাছে থাকা পিডিয়ে জায়া জেলায় উদ্ধার অভিযানে অংশ নিয়েছে সাধারণ গ্রামবাসী, সেনাবাহিনী এবং পুলিশ। উদ্ধারকর্মীরা ধসে যাওয়া ভবন এবং দোকান-পাটের নিচ থেকে লোকজনকে উদ্ধারের চেষ্টা করে যাচ্ছেন।

indonesia-earthquack-2

পিডিয়ে জায়ার জেলা প্রধান আয়ুব আব্বাস এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, ভূমিকম্পে শুধুমাত্র ওই জেলাতেই ২৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। একটি স্থানীয় স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, নিহতদের মধ্যে আট শিশুও ছিল।

ভূমিকম্পের উপকেন্দ্র থেকে ১৮ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমের জেলাতে ৪০টির বেশি মসজিদ, গুদামঘর এবং বাড়ি ধসে পড়েছে।

মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপ জানিয়েছে, আচেহ প্রদেশের উত্তরের রিওলিওট শহর থেকে ১০ কিলোমিটার উত্তরে স্থানীয় সময় সকাল ৫টা তিন মিনিটে ভূমিকম্পটি আঘাত হানে। ভূপৃষ্ঠ থেকে এর গভীরতা ছিল ১৭ কিলোমিটার। তবে ভূমিকম্পটি থেকে সুনামি সতর্কতা জারি করা হয়নি।

indonesia3

জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর (বিএনপিবি) এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ভূমিকম্পের সময় তীব্র কম্পন অনুভূত হয়েছে। সে সময় আতঙ্কিত লোকজনকে নিজেদের বাড়ি-ঘর ছেড়ে রাস্তায় জড়ো হতে দেখা যায়।

বিএনপিবি টুইটারে বেশ কিছু আহত মানুষের ছবি প্রকাশ করেছে। ভূমিকম্পের সময় অনেক মানুষ নিজেদের বাড়ি-ঘরে আটকা পড়েছিল। তাদের উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে আচেহ ইন্দোনেশিয়া রেড ক্রিসেন্ট। সংস্থাটি জানিয়েছে, বহু মানুষ আহত হয়েছে। তবে ঠিক কতজন আহত তা জানাতে পারেনি তারা।

এর আগে আচেহ প্রদেশে ২০০৪ সালে সুনামির আঘাতে ১ লাখ ২০ হাজার মানুষ প্রাণ হারায়। সূত্র: এপি

LEAVE A REPLY