নাটোরের তিন যুবলীগকর্মীকে তুলে নিয়ে গুলি করে হত্যার ঘটনায় ‘প্রশিক্ষিত বিশেষ বাহিনীর’ বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকালে নাটোর সদর থানায় নিহত রেদোয়ান আহমেদ সাব্বিরের মা রুখসানা বেগম বাদী হয়ে এ হত্যা মামলা দায়ের করেন।

নাটোর সদর থানার ওসি মিজানুর রহমান জানান, মামলায় তিনি বিশেষ বাহিনীর অজ্ঞাত ১৫ সদস্যকে আসামি করেছেন।

তবে বিশেষ বাহিনীর নাম উল্লেখ করা হয়নি।

বাদীর অভিযোগ, শনিবার রাত ১১টার দিকে নাটোর সদর উপজেলার তোকিয়া বাজারের একটি চায়ের দোকান থেকে বিশেষ বাহিনীর সাদা পোশাকধারী ১৫/১৬ ব্যক্তি তার ছেলে সাব্বির ও তার দুই বন্ধুকে ধরে মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে যায়।

ঘটনাটি প্রত্যক্ষদর্শীদের মুখে শোনার পর পুলিশ ও র‌্যাবের কাছে গিয়ে এ বিষয়ে অবহিত করা হয়। কিন্তু পুলিশ বা র‌্যাব তাদের সন্ধান দিতে পারেনি। প্রতিটি থানাসহ বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করেও কোথাও তাদের পাওয়া যায়নি।

পরে সোমবার সকাল ৯টার সময় দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলার রাণীগঞ্জ কলাবাড়ী মাদ্রাসার পাশে শাহ পুকুর সংলগ্ন এলাকা থেকে তাদের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

LEAVE A REPLY