আন্তর্জাতিক ডেস্ক: কোনো দেশের রাষ্ট্রপতি বা প্রধানমন্ত্রী বা ফার্স্ট লেডি নন তিনি, কিন্তু তবুও তিনিই পৃথিবীর সবচেয়ে হেভিওয়েট নারী। কারণ, ৫০০ কিলোগ্রাম ওজনের ইমান আহমেদই হলেন আক্ষরিক অর্থে সবচেয়ে ‘হেভি ওয়েট লেডি ইন দিস প্ল্যানেট’। কিন্তু ঠাঁই নেই, ঠাঁই নেই। ধরিত্রী চাইলেও সকলে তো আর অত ভার বইতে চায় না!

বছর ৩৬-এর মিশরীয় এই যুবতী এখন রোগা হওয়ার জন্য চিকিত্সা করাতে যেতে চাইছেন ভারতের মুম্বাইতে। আর সেখানেই বিপত্তি। কারণ, কোনো বিমান সংস্থাই তাকে উড়িয়ে নিয়ে আসার ‘রিস্ক’ নিতে চাইছে না।

কায়রোবাসী ইমান বিগত ২৫ বছর ধরে তার অতিরিক্ত ওজনের জন্য বাড়ির বাইরে পা ফেলতে পারেন না। খুব স্বাভাবিক ভাবেই এই অস্বাভাবিক রকমের বেশি ওজনের জন্য তার নানা শারীরিক সমস্যা ডেকে এনেছে। অসংখ্য ডাক্তার তাকে নিরাশ করলেও, মুম্বাইয়ের এক চিকিত্সকের কথায় তিনি আশার আলো খুঁজে পেয়েছেন। নিজে কিডনি সমস্যা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি থাকা অবস্থাতেই ভারতের বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ তাকে মেড্কিযাল ভিসা দেয়ার বিষয়ে সবুজ সংকেত দিয়েছেন। কিন্তু কোনো বিমান সংস্থাই যে তাকে বহন করে নিয়ে আতে চাইছে না।

জেট এয়ার ওয়েজ জানিয়েছে যে, তাদের সংস্থা সর্বোচ্চ ১৩৬ কেজি ওজনের রোগী বহন করে থাকে। কারণ, তাদের স্টেচারগুলোও ওই ক্ষমতা পর্যন্ত বহনে সক্ষম। কিন্তু, এয়ার ইন্ডিয়া জানিয়েছে, এবিষয়ে (রোগীর ওজনের উচ্চসীমা) তাদের কোনো সুনির্দিষ্ট নির্দেশিকা নেই। ফলে এয়ার ইন্ডিয়া লিখিত অনুরোধ করলে তারা ভেবে দেখতে পারেন।

এদিকে, ইমানের ডাক্তার মুফ্ফাজল লাকদেওয়ালা সোশ্যাল মিডিয়ায় ‘সেভ ইমান’ হলে একটি প্রচার চালাচ্ছেন। এখন দেখার পরিবহন সংক্রান্ত লাল ফিতের ফাঁস কাটিয়ে কত দ্রুত জীবনের জয়গান ভাষা পায়। ডাক্তার লাকদেওয়ালার মতোই ২৪ ঘন্টা ডট কমও ইমানের সুস্থতার বিষয়ে নিঃসংশয়, শুধু অপেক্ষা সুস্থ-স্বাভাবিক ইমনের জন্য।

LEAVE A REPLY