সেনা মোতায়েন ছাড়া নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে সুষ্ঠু ভোট হওয়া নিয়ে সন্দেহপ্রকাশ করেছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান হাফিজউদ্দিন আহম্মেদ।
এই সরকারের আমলে ঢাকা ও চট্টগ্রাম দুটি সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোটারতো দূরের কথা, প্রার্থীদের এজেন্টরা পর্যন্ত ভোটকেন্দ্রে প্রবেশ করতে পারেনি অভিযোগ করে বিএনপির এ নেতা বলেন, “সেনাবাহিনী ছাড়া নারায়ণগঞ্জের নির্বাচন সুষ্ঠু হবে কিনা এব্যাপারে আমাদের সকলের সন্দেহ রয়েছে।”

বুধবার সকালে নারায়ণগঞ্জ শহরেরশায়েস্তা খান রোডে (পুরাতন কোর্ট এলাকায়) বিএনপি মেয়রপ্রার্থীর নির্বাচনী ক্যাম্প ও মিডিয়া সেন্টার উদ্বোধনশেষে এ সংবাদ সম্মেলনে সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে এ আশঙ্কা প্রকাশ করেন তিনি।

গত নির্বাচনে দলীয় প্রতীক ছাড়া অংশ নিয়ে সেনাবাহিনী চাইলেও এবার সরকারদলীয় প্রার্থী হয়ে সেনা মোতায়েনের দাবি থেকে সরে আসায় সেলিনা হায়াৎ আইভীর সমালোচনা করে বিএনপির এ নেতাবলেন, “তিনি গতবারও প্রার্থী ছিলেন। তখন আকুল হয়ে সেনা মোতায়েনের দাবি জানিয়েছিলেন, নির্বাচন কমিশনও সেনা মোতায়েনের কথা বলেছিল।

“কিন্তু আওয়ামী লীগ সরকার সেনা মোতায়েন করেনি। একই প্রার্থী এবার সিইসির প্রতিধ্বনি করে সেনা লাগবে না বলছেন।”

বর্তমান বাংলাদেশের বাস্তবতার প্রেক্ষিতে সেনা মোতায়েন ছাড়া কোনো নির্বাচন সুষ্ঠু হওয়া সম্ভব নয় মন্তব্য করে বিএনপির এ ভাইস চেয়ারম্যান বলেন, “প্রধান নির্বাচন কমিশন অন্যান্য কমিশনারের সঙ্গে কথা না বলে সঙ্গে সঙ্গে বলেদিলেন এখানে সেনা মোতায়েন করা হবে না।”

হাফিজউদ্দিন বলেন, “রিটার্নিং কর্মকর্তাও বলেছেন ১৭৪টি ভোটকেন্দ্রের সবগুলোই ঝুঁকিপূর্ণ। তার কথাও যদি আমরা ধরে নিই, তাহলে শুধু পুলিশ দিয়ে সুষ্ঠু ভোট সম্ভব না।

“এজন্য পুলিশ ও আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর পাশাপাশি সেনাবাহিনীও মোতায়েন করতে হবে।” সুষ্ঠু ভোট হলে বিএনপির প্রার্থী সাখাওয়াত হোসেন খানের বিজয় ‘অবিশ্বম্ভাবী’ বলে দাবি করেন তিনি।

এসময় অন্যদের মধ্যে জেলা বিএনপির সভাপতি তৈমুর আলম খন্দকারসহ নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

আসছে ২২ ডিসেম্বর নারায়ণগগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী সাখাওয়াত হোসেন খানের পক্ষে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতারা ইতোমধ্যেই নারায়ণগঞ্জে এসে প্রচারে অংশ নিতে শুরু করেছেন।

LEAVE A REPLY