আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ভারতের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্ট সব রাজ্য ও জাতীয় মহাসড়কের পাশে থাকা মদের দোকান বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছেন। বৃহস্পতিবার আদালত এই নির্দেশ দেন। সুপ্রিম কোর্ট তাঁর নির্দেশনায় তাৎক্ষণিকভাবে মহাসড়কের পাশে কোনো ধরনের মদের দোকানকে লাইসেন্স দেওয়া বন্ধ করতে নির্দেশ দেন। যেসব দোকানের লাইসেন্স রয়েছে, সেগুলোর নিবন্ধনও আগামী বছরের ৩১ মার্চের মধ্যে বাতিল করতে বলা হয়।

মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালানো রোধে এক আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে এই নির্দেশ দেয়া হয়। অ্যারাইভ সেফ নামের একটি এনজিওর পক্ষে আবেদনটি করেন হারম্যান সিং সিধু। তিনি বলেন, ভারতের মহাসড়কগুলোর পাশে দেড় কিলোমিটার পরপরই মদের দোকান দেখা যায়।

দেশটির সড়ক পরিবহন মন্ত্রণালয়ের তথ্যমতে, ২০১৫ সালে ভারতে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রায় দেড় লাখ মানুষ প্রাণ হারায়। সে অনুযায়ী প্রতিদিন প্রায় ৪০০ ও প্রতি ঘণ্টায় ১৭ জনের প্রাণহানি ঘটে। এ মৃত্যুর ৫ শতাংশই (৬ হাজার ৭৫৫) ঘটে চালকেরা মদ্যপ বা মাদকাসক্ত থাকায়।

প্রধান বিচারপতি টি এস ঠাকুর বলেন, ‘জাতীয় ও রাজ্য মহাসড়কের পাশে কোনো ধরনের মদ বিক্রি করা যাবে না।’ একই সঙ্গে তিনি এসব সড়ক থেকে মদের ব্যানার ও বিজ্ঞাপন সরিয়ে নিতেও নির্দেশ দেন। যদি কোনো দোকান অ্যালকোহল বিক্রি করতে চায়, তাহলে সেই দোকান হতে হবে মহাসড়ক থেকে অন্তত ৫০০ মিটার দূরে।

মদ ব্যবসায়ীরা বলছেন, এর মধ্য দিয়ে তাঁদের ব্যবসা ঝুঁকির মুখে পড়বে। খবর এএফপি।

LEAVE A REPLY