বুড়িমারী স্থলবন্দর-সান্তাহার আন্তঃনগর করতোয়া এক্সপ্রেসের যাত্রা শুরু

অবশেষে শুরু হলো বুড়িমারী স্থলবন্দর-লালমনিরহাট-সান্তাহার আন্তঃনগর করতোয়া এক্সপ্রেস ট্রেন চলাচল । সোমবার প্রথমবারের মতো যাত্রা শুরু করে ট্রেনটি।

লালমনিরহাট বিভাগীয় রেলওয়ে দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, গত সোমবার সকাল ৯টায় নওগাঁর সান্তাহার রেলওয়ে জংশন স্টেশন থেকে বুড়িমারী স্থলবন্দর রেলওয়ে স্টেশনের উদ্দেশে ছেড়ে আসে ট্রেনটি। বেলা ১টা ৫ মিনিটে লালমনিরহাট বিভাগীয় সদর দপ্তর রেলওয়ে স্টেশনে পৌঁছে ৩০ মিনিটের যাত্রাবিরতি নেয়। এর পর বুড়িমারী স্থলবন্দরে পৌঁছায় বেলা ৩টা ১৫ মিনিটে। সেখানে ২৫ মিনিটের সান্টিং শেষে লালমনিরহাটের উদ্দেশে ৩টা ৪০ মিনিটে ছেড়ে আসে। গন্তব্যে পৌঁছে বিকাল ৫টা ৪০ মিনিটে। লালমনিরহাট রেলওয়ে স্টেশনে ২০ মিনিটের যাত্রাবিরতি শেষে সন্ধ্যা ৬টায় নওগার সান্তাহার রেলওয়ে স্টেশনের উদ্দেশে ছেড়ে এসে রাত ১০টায় পৌঁছায়। প্রতিদিন একই নিয়মে ট্রেনটি চলাচল করবে।

সকাল ৯টায় সান্তাহার থেকে ছেড়ে এসে বগুড়া-সোনাতলা-বোনারপাড়া-গাইবান্ধা-বামনডাঙ্গা-পীরগাছা-কাউনিয়া-লালমনিরহাট-আদিতমারী-তুষভাণ্ডার-হাতীবান্ধা-পাটগ্রাম-বুড়িমারী স্টেশনে যাত্রী ওঠানামার জন্য দাঁড়াবে ট্রেনটি। ফেরার পথেও এসব স্টেশনে দাঁড়াবে।

লালমনিরহাট বিভাগীয় ট্রাফিক সুপারিনটেনডেন্ট মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, দীর্ঘদিন পর সরাসরি বুড়িমারী-লালমনিরহাট-সান্তাহার রুটে আন্তঃনগর ট্রেন চলাচল শুরু হলো। এখন থেকে নীলসাগর, দ্রুতযান ও সীমান্ত এক্সপ্রেসে ঢাকা আসা-যাওয়া করতে পারবেন এ অঞ্চলের মানুষ।

সহকারী ট্রাফিক সুপারিনটেনডেন্ট সাজ্জাত হোসেনের ভাষ্যে, ৬৮ আসনবিশিষ্ট চারটি ডব্লিউই কোচে ২৭২, ডব্লিউপিসি একটি কোচে ২৪, ডব্লিউইএলআর একটি কোচে ৩৪ ও একটি ডব্লিউসি কোচে ৬০ জন করে যাত্রী যেতে পারবেন।

লালমনিরহাট বিভাগীয় রেলওয়ে ম্যানেজার নাজমুল ইসলাম করতোয়া এক্সপ্রেস সরাসরি বুড়িমারী-লালমনিরহাট-করতোয়া রুটে চলাচলের কথা নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, আগে বুড়িমারী-লালমনিরহাট-বিরল-দিনাজপুর হয়ে লালমনিরহাট ফেরত এসে সেখান থেকে বুড়িমারী হয়ে করতোয়া এক্সপ্রেস যেত। ওই ট্রেনটির সময় যাত্রীদের জন্য সুবিধাজনক ছিল না। এখন সময়টি যাত্রীদের জন্য উপযুক্ত। ঢাকাগামী তিনটি আন্তঃনগর এক্সপ্রেস ট্রেন সংযোগ পাবে সান্তাহারে। তবে বুড়িমারী-লালমনিরহাট-বিরলগামী আগের ট্রেনটি যথা নিয়মে চলাচল করবে।

LEAVE A REPLY