প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বহনকারী বিমানে যান্ত্রিক ত্রুটির ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলায় সাতজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে ডিএমপির উপকমিশনার (গণমাধ্যম) মাসুদুর রহমান বিষয়টি জানিয়েছেন।

গত সোমবার তদন্ত কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী এ ঘটনায় ফৌজদারি মামলা করার ব্যাপারে সম্মতি দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-কমিশনার (ডিসি মিডিয়া) মো. মাসুদুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী বিমানের ইঞ্জিনে ত্রুটির বিষয়ে গঠিত পৃথক তিনটি তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনেই বলা হয়েছে, এটা ‘মানবসৃষ্ট’। এটা সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের দায়িত্বে অবহেলা বা অদক্ষতা, নাকি নাশকতার চেষ্টা ছিল, তা খতিয়ে দেখার জন্য ফৌজদারি মামলা করার সুপারিশ করে মন্ত্রণালয়ের গঠিত তদন্ত কমিটি। প্রতিবেদনে বলা হয়, বিমানের প্রকৌশল শাখাসহ প্রতিটি স্তরে অদক্ষতা ও স্বেচ্ছাচারিতার প্রমাণ পাওয়া গেছে।

তবে গ্রেফতারকৃতদের নাম জানাতে পারেননি তিনি। কোথা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে সে বিষয়েও কিছু জানাননি তিনি।

উল্লেখ্য, গত ২৭ নভেম্বর হাঙ্গেরি যাওয়ার পথে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বহনকারী বিমানের ইঞ্জিনে ত্রুটি দেখা দেয়, যার কারণে সেটি তুর্কমেনিস্তানের রাজধানী আশখাবাদে জরুরি অবতরণ করে। পরে অপর একটি বিমান পাঠিয়ে প্রধানমন্ত্রী ও তাঁর সফরসঙ্গীদের বুদাপেস্টে পৌঁছানো হয়।

LEAVE A REPLY