ব্রুনাইয়ে ক্রিসমাস উদযাপন করলেই অনূর্ধ ৫ বছরের জেল, ২০০০০ ডলার জরিমানা অথবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন । এর ফলে বড়দিনের শুভেচ্ছা বার্তা পাঠানো বা সান্তা ক্লজ টুপি পরিধান করা যাবে না ।

২০১৪ সাল থেকে ব্রুনাইয়ে শতভাগ শরিয়া আইন জারি করা হয়। সে বছরই ব্রুনাইয়ের সুলতান হাসান আল বলখিয়ার এক ঘোষণা অনুযায়ী সে দেশে ক্রিসমাস উদযাপন নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয় । তবে এই আইন শুধু মুসলমানদের জন্য প্রযোজ্য।

এর কারন হিসেবে বলা হচ্ছে যে, খোলামেলা ভাবে ক্রিসমাস উদযাপন মুসলিমদের ক্ষতির কারন হতে পারে । খৃষ্টানরা ক্রিসমাস উদযাপন করতে পারবে কিন্তু সেটা একান্তই ব্যক্তিগত ভাবে এবং অনুমতি নিয়ে করতে হবে বলে জানানো হয়েছে। স্থানীয় ধর্মীয় নেতারা ক্রিসমাস নিষিদ্ধ করতে অগ্রণী ভুমিকা রেখেছে বলে জানা গেছে । তাদের মত বড়দিনের উদযাপন মুসলিমদের আকিদা বা বিশ্বাসকে দুর্বল করতে পারে । এদিকে কেউ যেন উন্মুক্তভাবে ক্রিসমাস উদযাপন করতে না পারে সেদিকে সর্বক্ষণিক খেয়াল রাখছে দেশটির ধর্ম মন্ত্রণালয় ।

উল্লেখ্য, ব্রুনাইয়ে প্রায় ৪ লাখ ২০ হাজার জনসংখ্যার মধ্যে ৬৫ শতাংশ মুসলিম। তেল সমৃদ্ধ ব্রুনাইয়ে এখনো রাজতন্ত্র বিদ্যমান।

সুত্রঃ ইন্ডিপেনডেন্ট

LEAVE A REPLY