লড়াই করেই জিতবো : আইভী

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোট দিয়েছেন আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী সেলিনা হায়াৎ আইভী। লড়াই করেই এই নির্বাচনে জয়ের আশা প্রকাশ করেছেন তিনি। নির্বাচনের ফল মেনে নেবেন বলেও জানিয়েছেন।

আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে নয়টার পর শহরের শিশুবাগ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দেন আইভী। ভোট দেওয়ার পর সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি।

আইভী বলেন, এখন পর্যন্ত নির্বাচনের পরিবেশ ভালো। তিনি আরও কেন্দ্র ঘুরবেন। নির্বাচনের ফল যা-ই হোক, মেনে নেবেন।

আওয়ামী লীগের এই মেয়র প্রার্থী বলেন, ‘নির্বাচন মানেই ফাইট। আমি ফাইট করেই জিতব।’

সকাল নয়টার দিকে শহরের দেওভোগ এলাকার বাড়ি থেকে আইভী বের হন। বাবার কবর জিয়ারত করে ভোটকেন্দ্রে যান তিনি।

শিশুবাগ বিদ্যালয় কেন্দ্রে আইভী যখন পৌঁছান, তখন সেখানে ভোটারদের দীর্ঘ সারি দেখা যায়। কেন্দ্রের বাইরে অপেক্ষায় ছিলেন আইভীর সমর্থকেরা। এক সমর্থকের পরনে ছিল আইভীর ছবিসহ টি-শার্ট। তাতে লেখা, ‘নাই শঙ্কা, নাই ভয়, নগর হবে শান্তিময়’।

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আজ সকাল আটটা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে। বিকেল চারটা পর্যন্ত বিরতিহীন ভোট গ্রহণ চলবে।

ivi

প্রায় পৌনে পাঁচ লাখ ভোটার আগামী পাঁচ বছরের জন্য তাঁদের ‘নগর অভিভাবক’ বেছে নিতে ভোট দিচ্ছেন। আজ রাতেই বেসরকারি ফলাফল ঘোষণা করার কথা রিটার্নিং কর্মকর্তার।

প্রধান দুই মেয়র প্রার্থীর মধ্যে আওয়ামী লীগের সেলিনা হায়াৎ আইভী নৌকায় ভোট দিয়ে উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখার আহ্বান জানিয়েছেন।

বিএনপির মেয়র প্রার্থী সাখাওয়াত হোসেন খান ধানের শীষে ভোট দিয়ে পরিবর্তনের সূচনা করতে ভোটারদের সহযোগিতা চেয়েছেন।

দলীয়ভাবে ও দলীয় প্রতীকে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনেই প্রথম ভোট হচ্ছে। এর আগে সব সিটি করপোরেশনে দলনিরপেক্ষ ভোট হয়েছে।

গত ২৪ নভেম্বর মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত এখানে বড় ধরনের কোনো অভিযোগ ওঠেনি। প্রার্থীদের মধ্যে একে অপরকে আক্রমণ করে বক্তব্য দেওয়ার ঘটনাও ছিল কম। কাউন্সিলর প্রার্থীদের নিয়ে শঙ্কা থাকলেও তাঁদের মধ্যেও বড় ধরনের কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

LEAVE A REPLY