বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিষ্টার মওদুদ আহমেদ বলেছেন, “নাসিক নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড ছিল না। ক্ষমতাসীন দলের মেয়র প্রার্থী অনেক সুবিধা পেয়েছেন। তার পরও অনেকেই বলছেন নির্বাচন সুষ্ঠ হয়েছে। সেখানে যদি আওয়ামী লীগের প্রার্থী সত্যিকারে জনগনের রায়ে নির্বাচিত হয়ে থাকেন, তাহলে সরকারের উচিৎ অনতি বিলম্বে নিরপেক্ষ সহায়ক সরকারের অধীনে তাদের জনমত যাচাইয়ে জাতীয় নির্বাচনের উদ্যোগ গ্রহণ করা।

আজ শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে নাগরিক ফোরাম আয়োজিত ‘স্বাধীন, নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন গঠনে বিএনপির প্রস্তাব : নাসিক নির্বাচন’ শীর্ষক এক গোলটেবিল আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

মওদুদ আহমেদ বলেন, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন (নাসিক) নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াত আইভী যদি সত্যিকারে জনগনের ভোটে নির্বাচিত হয়ে থাকেন তাহলে সরকারের উচিৎ জনমত যাছাইয়ে অবিলম্বে নিরপেক্ষ সরকারের অধিনে জাতীয় নির্বাচনের উদ্দ্যোগ গ্রহন করা।

দেশে গণতান্ত্রিক চর্চার কোন পরিবেশ নেই উল্লেখ করে তিনি বলেন, দেশে কোন রাজনীতি নেই। যা আছে এক দলীয় অপ-রাজনীতি। যারা বিরোধী দলের প্রয়োজনীয়তা বোধ করে না।

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে বিএনপির আলোচনা প্রসঙ্গে টেনে বিএনপির এই সিনিয়র নেতা বলেন, আলোচনার মধ্য দিয়ে দেশের চলমান সংকট নিয়ে সংলাপের দ্বার উন্মোচিত হয়েছে। এখন সরকারের দায়িত্ব দেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনার জন্য উদ্যোগ নেয়া

তিনি আরও বলেন, নির্বাচন কমিশন যতই শক্তিশালী হোক দলীয় সরকারের অধীনে কোন নির্বাচন সুষ্ঠ হতে পারে না। অতীত অভিজ্ঞতা সেটিই বলে।

আয়োজক সংগঠনের চেয়ারম্যান আবদুল্লাহিল মাসুদের সভাপতিত্বে গোলটেবিল বৈঠকে আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, জাগপা সভাপতি শফিউল আলম প্রধান, লেবার পার্টির সভাপতি ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, জাতীয়তাবাদী দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও আন্দোলনের সভাপতি কে এম রকিবুল ইসলাম রিপন প্রমুখ।

LEAVE A REPLY