অভিযানের সমাপ্তি ঘোষণাঃ আস্তানা থেকে গ্রেনেড-সুইসাইডাল ভেস্ট উদ্ধার

রাজধানী ঢাকার আশকোনার জঙ্গি আস্তানায় গ্রেনেড ও সুইসাইডাল ভেস্টসহ বিস্ফোরক সরঞ্জাম পাওয়া গেছে ।উদ্ধার অভিযানের আনুষ্ঠানিক সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়েছে।

রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম সাংবাদিকদের সঙ্গে এ নিয়ে কথা বলেন ।

তিনি বলেন, জঙ্গিরা অভিযানের সময় কিছু জরুরি কাগজপত্র, ল্যাপটপ, মোবাইল, পুড়িয়ে ফেলেছে। ধারণা করা হচ্ছে- আস্তানাটি জঙ্গিদের দাফতরিক কাজে ব্যবহৃত হতো। সেখানে সব জঙ্গি ও তাদের স্ত্রীরা যাতায়াত করতো।

মনিরুল ইসলাম বলেন, ওই বাসায় কিছু নথিপত্র পাওয়া গেছে। এসব নথিপত্রে কী আছে তা যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে।

টাকা পুড়িয়ে ফেলার আলামত পাওয়া গেছে জানিয়ে তিনি বলেন, আটককৃতরা জিজ্ঞাসাবাদে বাসাটিতে ১২ লাখ টাকা ছিল বলে জানিয়েছে।

কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট প্রধান বলেন, বাসা থেকে ১৭টি হাতে তৈরি শক্তিশালী গ্রেনেড উদ্ধার করে নিষ্ক্রিয় করা হয়েছে। সাতটি হাতে তৈরি বোমা ও দুইটি সুইসাইডাল ভেস্ট পাওয়া গেছে। বোমা, গ্রেনেড তৈরির স্প্লিন্টার সরঞ্জাম মওজুদ ছিল আস্তানাটিতে। বিস্ফোরণ ঘটিয়ে এসব বিস্ফোরক নিষ্ক্রিয় করা হয়েছে।

জঙ্গি আদরের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, নিহত আদরের হাতে একটি পিস্তল পাওয়া গেছে। সেটি দিয়ে সে পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি করে। আদর পুলিশের গুলিতে মারা যেতে পারে আবার নিজের গুলিতে আত্মহত্যাও করে থাকতে পারে।

মনিরুল ইসলাম বলেন, এছাড়াও একটি নাইন এমএম পিস্তলসহ দুইটি ম্যাগাজিন পাওয়া গেছে। এছাড়া দুই নারী জঙ্গি আত্মসর্পণের সময় একটি পিস্তল জমা দেয়। এনিয়ে মোট তিনটি পিস্তল উদ্ধার করা হয়েছে।

তিনি বলেন, আমাদের ধারণা- জঙ্গিরা থার্টি ফাস্ট নাইটে বড় ধরনের নাশকতা চালানোর প্রস্তুতি নিচ্ছিল। কিন্তু পুলিশি তৎপরতার কারণে সেটা সম্ভব হয়নি।

এই আস্তানার মতো রাজধানীতে আরও আস্তানা থাকতে পারে আশংকা প্রকাশ করে কাউন্টার টেরোরিজম প্রধান বলেন, জঙ্গিরা কিছু দিন পরপর আস্তানা পরিবর্তন করে। রাজধানীর অন্য এলাকাতেও আস্তানা থাকতে পারে।

তিনি দাবি করেন, আত্মঘাতী নারী জঙ্গি শাকিলার লক্ষ্য ছিল পুলিশের ওপর হামলা। পুলিশ বিষয়টি বুঝতে পেরে আগেই গুলি করে।

মনিরুল ইসলাম বলেন, ক্যান্সার আক্রান্ত হয়ে শাকিলার আগের স্বামী ইকবাল মারা যান। পরে মোবাইল ফোনের সূত্র ধরে জঙ্গি সুমনের সঙ্গে তার বিয়ে হয়। সুমন তাকে জঙ্গিবাদে দীক্ষা দেয়।

এ ঘটনায় মামলা রুজু প্রক্রিয়াধীন উল্লেখ করে তিনি বলেন, সন্ত্রাস বিরোধী ও বিশেষ ক্ষমতা আইনে দক্ষিণ খান থানায় মামলা দায়ের করা হবে।

 

LEAVE A REPLY