আশুলিয়ায় গার্মেন্টস ফ্যাক্টরি খুলে দেয়ায় মালিক-শ্রমিকদের অভিনন্দন মন্ত্রিসভার

সাভারের আশুলিয়ায় শ্রমিক অসন্তোষের জের ধরে সম্প্রতি বন্ধ হওয়া ৫৯টি তৈরি পোশাক কারখানা আজ সোমবার থেকে খুলে দেয়ায় শ্রমিক ও মালিকদের অভিনন্দন জানিয়েছে মন্ত্রিসভা।

আজ সোমবার সচিবালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে এ উদ্যোগকে স্বাগত জানানো হয়। মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম এ তথ্য জানিয়েছেন।

মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘আশুলিয়ায় গার্মেন্টস ফ্যাক্টরিগুলো আবার খুলে দেয়ার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। মন্ত্রিসভা এটাকে স্বাগত জানিয়েছে।এটা ভালো উদ্যোগ যে এগুলো খুলে দেয়া হয়েছে’।

তিনি জানান, ফ্যাক্টরিগুলো বন্ধ থাকলে আমাদের দেশের শত শত কোটি টাকার ক্ষতি।সমস্যা সমাধানের জন্য সমন্বিত উদ্যোগের মাধ্যমে আজ থেকেই সবগুলো প্রতিষ্ঠানই খুলে দেয়া হয়েছে।৮০ থেকে ৯০ শতাংশ শ্রমিক যোগদান করেছেন।

শ্রমিকদের মজুরি বৃদ্ধির বিষয়ে মন্ত্রিসভায় কোনো আলোচনা হয়েছে কি না, এ বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘এটার তো বিধান আছে। সময়ে সময়ে এটাকে আপডেট করার সুযোগ আছে। যে সিস্টেমটা আইনে দেয়া আছে, সেটা প্রিম্যাচিউর, এখনও স্টেজটা(৫ বছর পরপর ন্যূনতম মজুরি নির্ধারণ)আসে নাই’।

উল্লেখ্য, দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি ও বাসাভাড়া বাড়ার কারণে ন্যূনতম মজুরি বাড়ানো, নানা অজুহাতে শ্রমিক ছাঁটাই বন্ধ, কোনো কারণে ছাঁটাই হলে নিয়ম অনুযায়ী প্রাপ্য পরিশোধ এবং ছুটিকালীন বেতন বহাল রাখার দাবিতে ১২ ডিসেম্বর থেকে আন্দোলন শুরু করেন ওই এলাকার তৈরি পোশাক শ্রমিকরা।২০ ডিসেম্বর বিজিএমইএ সভাকক্ষে জরুরি সংবাদ সম্মেলন করে সাভারের আশুলিয়ায় সব তৈরি পোশাক কারখানা অনির্দিষ্টিকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করে বিজিএমইএ।

এদিকে রোববার সন্ধ্যায় বিজিএমইএ সভাকক্ষে জরুরি এক সংবাদ সম্মেলন করে সংগঠনটির সভাপতি মো. সিদ্দীকুর রহমান জানান, সাভারের আশুলিয়ায় বন্ধ পোশাক কারখানাগুলো সোমবার থেকে খুলছে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশের পোশাক প্রস্তুতকারী ও রফতানিকারকদের সংগঠন (বিজিএমইএ)।

LEAVE A REPLY