‘শর্তসাপেক্ষে’ শ্রাবণ প্রকাশনীর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার

অমর একুশে গ্রন্থমেলা-২০১৭ এ অংশগ্রহণে শ্রাবণ প্রকাশনীর ওপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞা ‘শর্তসাপেক্ষে’ প্রত্যাহার করে নেয়ার বিষয়টি বিবেচনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলা একাডেমির নির্বাহী পরিষদ।

শুক্রবার বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খানের সভাপতিত্বে নির্বাহী পরিষদের সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়েছে। সভায় একাডেমির ১২ জন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

তিনি বলেন, অমর একুশে গ্রন্থমেলার নীতিমালা পরিপন্থী কোনো কার্যক্রম করবে না এবং ধর্মীয় মূল্যবোধে আঘাত হানে এমন বই প্রকাশ করবে না বা এই ধরনের কোনো কর্মসূচিতে অবস্থান নেবে না – এ শর্তে অঙ্গীকারনামা পাঠালে বাংলা একাডেমি শ্রাবণ প্রকাশনীর ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নেয়ার বিষয়টি বিবেচনা করবে।

এদিকে শ্রাবণ প্রকাশনীর স্বত্বাধিকারী রবীন আহসান জানান, গ্রন্থমেলার গঠনতন্ত্রে এমন নীতিমালা থাকায় তার স্বাক্ষর করতে ‘আপত্তি নেই’।

তিনি বলেন, ধর্মীয় মূল্যবোধে আঘাত হানে, এমন কোনো বই শ্রাবণ থেকে প্রকাশিত হয়নি, আর কখনো হবেও না।

তবে রবীন বলেন, একজন স্বতন্ত্র লেখক হিসেবে আদর্শিক কারণে বাংলা একাডেমির বাইরে যদি কোনো প্রতিবাদী কর্মসূচি পালিত হয়, তবে আমি অবশ্যই অংশগ্রহণ করবো।

উল্লেখ্য, গত ১০ নভেম্বর বইমেলা সংক্রান্ত এক সভায় বাংলা একাডেমির নির্বাহী পরিষদ গ্রন্থমেলার ‘স্বার্থবিরোধী’ কার্যকলাপের অভিযোগ এনে শ্রাবণ প্রকাশনীকে দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ করে।

নিষেধাজ্ঞার প্রতিবাদে ২৭ ডিসেম্বর বাংলার একাডেমির সামনে লেখক-শিল্পী-সংস্কৃতিকর্মীরা এক বিক্ষোভ সমাবেশ করেন। ‘দীর্ঘদিন পদে থেকে ক্ষমতার অপব্যবহার করছেন—এমন অভিযোগে এনে শামসুজ্জামান খানের পদত্যাগ দাবি করেন তারা।

LEAVE A REPLY