সালমানকে পিছনে ফেললো আমিরের ‘দঙ্গল’

বিনোদন ডেস্ক: হাফ সেঞ্চুরি, সেঞ্চুরি ও দেড়শ’র কোটা ছাড়িয়ে ২০০ কোটি রুপির অভিজাত ক্লাবে ঢুকে পড়লো আমির খানের ‘দঙ্গল’। গত ২৩ ডিসেম্বর মুক্তির পর আট দিনে শুধু ভারতেই এটি আয় করেছে ২১৬ কোটি ১৩ লাখ রুপি।

এ নিয়ে বলিউডের ৯টি ছবি ২০০ কোটির ঘরে ঢুকলো। এই ক্লাবের সদস্যদের মধ্যে এরই মধ্যে ‘দঙ্গল’ পেছনে ফেলেছে সালমান খানের ‘প্রেম রতন ধন পায়ো’ (২১০ কোটি রুপি) ও ‘এক থা টাইগার’ (১৯৯ কোটি রুপি), শাহরুখ খানের ‘হ্যাপি নিউ ইয়ার’ (২০৫ কোটি রুপি) ও আমিরের আরেক ছবি ‘থ্রি ইডিয়টস’কে (২০২ কোটি ৫ লাখ রুপি)।

শুক্রবারও (৩০ ডিসেম্বর) দারুণ ভালো দিন গেছে ছবিটির জন্য। সাধারণত বৃহস্পতিবার ও শুক্রবারে আগের সপ্তাহে মুক্তি পাওয়া ছবি পড়ে যায়। কিন্তু আমিরের ছবির সামনে হুমকি হওয়ার মতো তেমন কোনো বড় বাজেটের ছবি মুক্তি পায়নি গতকাল শুক্রবার।

বলিউডে সর্বকালের সেরা ব্যবসাসফল ছবির তালিকায় ‘দঙ্গল’ এখন সাত নম্বরে। সামনে আছে আমিরের ‘পিকে’ (৩৪০ কোটি ৮০ লাখ রুপি), সালমানের ‘বজরঙ্গি ভাইজান’ (৩২১ কোটি রুপি) ও ‘সুলতান’ (৩০১ কোটি ৫০ লাখ রুপি), আমিরের ‘ধুম থ্রি’ (২৮৪ কোটি রুপি), সালমানের ‘কিক’ (২৩২ কোটি রুপি) ও শাহরুখের ‘চেন্নাই এক্সপ্রেস’ (২২৭ কোটি রুপি)।

টুইটারে ভারতের বাণিজ্য বিশ্লেষক তরণ আদর্শ জানিয়েছেন, মুক্তির প্রথম দিন ২৯ কোটি ৭৮ লাখ রুপি, ২৪ ডিসেম্বর ৩৪ কোটি ৮২ লাখ রুপি, বড়দিনে ৪২ কোটি ৪১ লাখ রুপি, ২৬ ডিসেম্বর ২৫ কোটি ৬৯ লাখ রুপি, পঞ্চম দিনে ২৩ কোটি ৯ লাখ রুপি, ২৮ ডিসেম্বর ২১ কোটি ২০ লাখ রুপি, ২৯ ডিসেম্বর ২০ কোটি ২০ লাখ রুপি ও শুক্রবার ১৮ কোটি ৫৯ লাখ রুপি আয় করেছে ‘দঙ্গল’।

শুধু একদিনে সর্বোচ্চ আয়ের রেকর্ডও গড়েছে ‘দঙ্গল’। ২৫ ডিসেম্বর ৪২ কোটি ৪১ লাখ রুপি ঘরে এনে এটি পেছনে ফেলেছে একই খেলাকে (কুস্তি) ঘিরে নির্মিত সালমানের ‘সুলতান’কে। এটি একদিনে আয় করে ৪০ কোটি রুপি।

এদিকে মুক্তির তিন দিনেই ১০০ কোটি রুপি আয়ের মাইলফলক স্পর্শ করে ‘দঙ্গল’। এ নিয়ে আমিরের পাঁচটি ছবি এই ক্লাবের সদস্য হলো। ছয়টি করে ছবি আছে শাহরুখ খান, অক্ষয় কুমার ও অজয় দেবগণের। সবচেয়ে বেশি ১০টি সেঞ্চুরির (১০০ কোটি রুপির ছবি) মালিক সালমান।

‘দঙ্গল’ই আমিরের ক্যারিয়ারে মুক্তির প্রথম সাতদিনে সবচেয়ে বেশি আয়ের (১৯৭ কোটি ৫৪ লাখ রুপি) ছবি। এর আগে তার ‘ধুম থ্রি’ সর্বোচ্চ ১৮৮ কোটি ৯৯ লাখ রুপি ঘরে এনেছিলো। এ ছাড়া ‘পিকে’ ১৮৩ কোটি ৯ লাখ রুপি, ‘থ্রি ইডিয়টস’ ৭৮ কোটি ৫৯ লাখ রুপি ও ‘তালাশ’ ৬৭ কোটি ৯০ লাখ রুপি আয় করে মুক্তির প্রথম সপ্তাহে।

নিতেশ তিওয়ারি পরিচালিত বহুল আলোচিত ছবিটি তৈরি হয়েছে হরিয়ানার কুস্তিগীর মহাবীর সিং ফোগাটের জীবন অবলম্বনে। দুই কন্যা গীতা ও ববিতা কুমারিকে প্রশিক্ষণ দিয়ে বিশ্বসেরা কুস্তিগীর হিসেবে গড়ে তোলেন তিনি। মহাবীর চরিত্রে অভিনয় করেছেন আমির খান। এ ছাড়াও আছেন ফাতিমা সানা শেখ, সানিয়া মালহোত্রা ও সাক্ষী তানওয়ার।

বহির্বিশ্বেও রমরমিয়ে ব্যবসা করছে ‘দঙ্গল’। এরই মধে অন্যান্য দেশ থেকে এসেছে ১১১ কোটি ৬৫ লাখ রুপি। ভারতে হিন্দি ছাড়া অন্য ভাষায় ডাব করে মুক্তি দেওয়া সংস্করণও ভালো চলছে। সব মিলিয়ে বিশ্বব্যাপী ৩৮৬ কোটি ১ লাখ রুপি আয় করেছে ছবিটি। এটি মুক্তি পেয়েছে ভারতের চার হাজার ৩০০ ও অন্যান্য দেশের হাজার প্রেক্ষাগৃহে।

বহির্বিশ্বে আয়ের দিক দিয়ে ‘দঙ্গল’-এর অবস্থান এখন নয় নম্বরে। এটি পেছনে ফেলেছে ‘হ্যাপি নিউ ইয়ার’ ও ‘বাজিরাও মাস্তানি’কে। সামনে আছে ‘পিকে’, ‘ধুম থ্রি’, ‘বজরঙ্গি ভাইজান’, ‘দিলওয়ালে’, ‘থ্রি ইডিয়টস’, ‘সুলতান’, ‘মাই নেম ইজ খান’ ও ‘চেন্নাই এক্সপ্রেস’।

শুধু টাকাকড়িই নয়, ২০১৬ সালের সবচেয়ে ইতিবাচক পর্যালোচনা হওয়া ছবির মধ্যে ‘দঙ্গল’ অন্যতম। সমালোচকদের ভূয়সী প্রশংসা কুড়িয়েছে এটি। তারকাদের কণ্ঠে শোনা গেছে এর প্রশংসা।