নেপিয়ারে প্রথম টি-টোয়েন্টিতে বৃষ্টি বাঁধ সাধলো!

নেপিয়ারে প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ মঙ্গলবার। আর বিদেশের মাটিতে বাংলাদেশের প্রধান টি-টোয়েন্টি তারকা সাকিব আল হাসানের আশা বাংলাদেশ জিতবে নেপিয়ারে। কিন্তু মরার বৃষ্টি যে পিছু ছাড়ছে না!

সোমবার এই বৃষ্টির কারণে নেপিয়ারের একমাত্র অনুশীলন পর্বটিও টাইগাররা ঠিকমতো করতে পারেনি। আর এখানেও নেলসনের ছায়া পিছু ছাড়লো না বাংলাদেশের! এতদিন টিম বাংলাদেশের জন্য নেলসন ছিল পয়মন্ত এক নাম। কারণ নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে না হোক গত বিশ্বকাপে এই নেলসনের স্যাক্সটন ওভালেই বাংলাদেশ নিউজিল্যান্ডের মাটিতে প্রথম জয় পেয়েছিল স্কটল্যান্ডের বিরুদ্ধে। কিন্তু এবার সেই নেলসনই বাংলাদেশের কাছে অপয়া এক নাম। সেখানে পরপর দুটি ম্যাচ হেরেছে টিম বাংলাদেশ। তাও আবার নিউজিল্যান্ডের মতো দলকে বাগে পেয়ে হারা!

হতাশায় নিমজ্জিত বাংলাদেশ দল নেপিয়ারে এসে সোমবার যে মাঠে অনুশীলন করতে গিয়েছিল তার নামও নেলসন পার্ক। দল মাঠে নামার পর নামল বৃষ্টি। বৃষ্টির ঝাপটা থেকে বাঁচতে খেলোয়াড়দের অনেকে আশ্রয় নেন লাগোয়া অস্থায়ী তাবুতে। টিম ম্যানেজমেন্ট সিদ্ধান্ত দিলে অনুশীলন বাদ দিয়ে খেলোয়াড়রা গিয়ে বসেন টিম বাসে। কিন্তু এ যেন চলে বৃষ্টির লুকোচুরি আর দুষ্টুমি।

bd-cricketখেলোয়াড়রা সবাই বাসে চড়ে বসতেই থেমে যায় বৃষ্টি। সিদ্ধান্ত হয় আবার নামো। সঙ্গে সঙ্গে সিদ্ধান্ত কবুল। খেলোয়াড়রা মাঠে ফিরে কেউ কেউ শুরু করেন ফুটবল খেলার অনুশীলন। বল হাতে নেটে অনুশীলন শুরু করেন টাইগার্স কাপ্তান মাশরাফি বিন মুর্তজা। মাঠের একটি টেবিলে শুইয়ে মুস্তাফিজকে ম্যাসাজ দেন ফিজিও। কিন্তু আবার শুরু হয় বৃষ্টি! ফের অনুশীলন প্যাকআপের ঘোষণা। কারণ নিউজিল্যান্ডের বৃষ্টি বাংলাদেশের মতো আহলাদ করে ভেজার বৃষ্টি নয়।

এই বৃষ্টির সঙ্গে ঠাণ্ডা নামে বলে এই বৃষ্টিতে ভিজলে জ্বর আসে। জ্বর আসলে খেলোয়াড়রা খেলবে-জিতবে কিভাবে? অতএব কোচের নির্দেশ পেয়ে খেলোয়াড়রা আবার গিয়ে উঠেন টিম বাসে। এবং তারা বাসে উঠার পর আবার থামে বৃষ্টি । এরজন্যেই এটিকে বলা হয় থ্রি ডব্লিউর দেশ। ওয়েদার, ওয়াইন, ওয়েলথ। এই তিনটির এখানে মা-বাপ নেই!

এই নেপিয়ারের ম্যাকলিন পার্কে মঙ্গলবার যে ম্যাচটি হবে, সফরে এটিই বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের ভক্তদের জন্য সুবিধাজনক প্রথম ম্যাচ! কারণ আগের তিন ওয়ানডে শুরু হয়েছিল বাংলাদেশ সময় ভোর ৪ টায়! আর নিউজিল্যান্ড থেকে ঘড়ির কাঁটা থেকে বাংলাদেশ ৭ ঘণ্টা পিছিয়ে। এখানে যেহেতু সন্ধ্যা ৭ টায় খেলা হবে বাংলাদেশের ঘড়িতে বাজবে তখন দুপুর ১২ টা। আর কি কোনও সুবিধা আছে? হ্যাঁ আছে। মাশরাফি, সাকিব, তামিমসহ বাংলাদেশের ৫ খেলোয়াড় আগে এ মাঠে খেলেছেন।

মমিনুলসহ তরুণ তিন ক্রিকেটার যুব বিশ্বকাপে খেলেছেন নেপিয়ারে। কাজেই দলের বেশিরভাগ খেলোয়াড়ের যেখানে নেপিয়ারের মাঠ পরিচিত, সেখানে দল ভালো খেলবেনা কেনও? আরেকটি ঘটনা আছে। তা হলো বাংলাদেশ জিতুক আর হারুক নেপিয়ারের ম্যাকলিন পার্কের উইকিপিডিয়ায় উঠে যাবে বাংলাদেশের নাম। কারণ এটিই ম্যাকলিন পার্কের প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচ। দ্বিতীয় ম্যাচটি হবে ফেব্রুয়ারিতে। ব্ল্যাক ক্যাপসের প্রতিপক্ষ সে ম্যাচে অস্ট্রেলিয়া।

কিন্তু ক্রিকেটের এভারেস্ট মাড়িয়ে বাংলাদেশ যে জিতবে, টি-টোয়েন্টির পরিসংখ্যানও সেই তথ্য দেয় না। এখন পর্যন্ত বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি খেলেছে ৬২ টি ম্যাচ। এরমধ্যে জিতেছে মাত্র ২০ টিতে। ৬২ টিতে হেরেছে। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে খেলেছে ৪ টি টি-টোয়েন্টি। এর সবক’টিতে হেরেছে। সর্বশেষ গত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে কলকাতার ইডেন পার্কে ব্ল্যাক ক্যাপস দলের বিরুদ্ধে খেলতে নেমে ৭৫ রানে হেরে যায় টিম টাইগার্স।

২০০৭ সালে বাংলাদেশের সিডর দুর্গতদের সহায়তার জন্যে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে এদেশের হ্যামিলটনের সিডন পার্কে একটি টি-টোয়েন্টি ফ্রেন্ডলি ম্যাচের আয়োজন করা হয়েছিল। সেই ম্যাচটিতে বাংলাদেশ জিতেছিল। কিন্তু ফ্রেন্ডলি ম্যাচ হওয়াতে সে খেলাটি আইসিসির রেকর্ডে নেই।

তবু এসব সত্ত্বেও এবার বাংলাদেশ জিততে চায় নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে। তিনটি ওয়ানডে হারার পর দলের ঘুরে দাঁড়াতে দরকার একটি জয়। কিন্তু জিতবে কিভাবে বাংলাদেশ। এখানে যে তার পিছু নিয়েছে বৃষ্টিও। সোমবার হঠাৎ করে আবার উত্তাল হয়ে উঠেছে প্রশান্ত মহাসাগর। এর ঝাপটা এসে আছড়ে পড়ছে এখানকার হকসবে’তে। এর ধাক্কায় বৃষ্টিতে ভিজে গেছে বাংলাদেশ দলের একমাত্র অনুশীলন পর্বটিও।

সোমবার এখানে সারাদিন একবারও রোদ হাসেনি। গুমোট মেঘলা আবহাওয়ার মধ্যে সারাদিন বয়েছে ঠাণ্ডা কনকনে শীত বাতাস। এখানকার আবহাওয়ার পূর্বাভাস বলছে মঙ্গলবার সকালে বৃষ্টি নামবে নেপিয়ারে। সকাল ৬ টায় বৃষ্টির সম্ভাবনা একশভাগ। এরপর সারাদিন নানা সময়ে চলবে বিচ্ছিন্ন বৃষ্টি। তাই সোমবার দলের পক্ষে সাকিব আল হাসানকে মিডিয়া ব্রিফিং’এ পেয়ে শক্তিশালী ব্ল্যাকক্যাপস দলের পাশাপাশি বৃষ্টি নিয়েও প্রশ্ন করেছে কিউই মিডিয়া।

সাকিব অবশ্য এসবকে আমল না দিয়ে ড্যামকেয়ার বলেছেন, ‘পুরো ২০ ওভার খেলতে চাই এবং জিততে চাই। এটাই বাংলাদেশের ষোলো কোটি মানুষের মনের কথা। কিন্তু এটি শুধুই কথার কথা কিনা তা সরেজমিন বা টিভিতে দেখতে বেতারে শুনতে মঙ্গলবার সন্ধ্যা পর্যন্ত অপেক্ষা করতেই হবে।’

LEAVE A REPLY