ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড সভাপতিকে সরিয়ে দিতে কোর্টের আদেশ

সোমবারই ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই) থেকে সভাপতি অনুরাগ ঠাকুরকে সরিয়ে দেওয়ার আদেশ দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্ট। একই সঙ্গে সচিব অজয় শিরকেকেও সরিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে এই আদেশে।

আদালতের রায়ে বলা হয়, বোর্ড লোধা প্যানেলের সুপারিশ অক্ষরে অক্ষরে মানতে ব্যর্থ হয়েছে। বিশেষ করে এর প্রয়োগে ব্যর্থ হয়েছেন বোর্ড সভাপতি অনুরাগ ঠাকুর ও অজয় শিরকে।
আদালত আরও বলেছেন, ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের বিপণন সংক্রান্ত কাজ সম্পাদনের জন্য আগামী ১৯ জানুয়ারি একটি পরিচালনা কমিটি গঠন করা হবে। আর এই কমিটি চূড়ান্ত করবেন দুই জন অ্যামিকাস কিউরি। আর ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের একজন সিনিয়র সহ সভাপতিই অন্তর্বর্তী হিসেবে দায়িত্ব নেবেন সভাপতি হিসেবে। তিনিই লোধা প্যানেলের সুপারিশ পালনে বাধ্য থাকবেন। একই সঙ্গে তার কাজের তদারকি করবে ওই পরিচালনা কমিটি।

এই রায়কে ক্রিকেটের জয় হিসেবেই দেখছেন লোধা প্যানেলের চেয়ারম্যান, ভারতের সাবেক বিচারপতি আর এম লোধা, ‘এটা ক্রিকেটরই জয়। এর ফলে ক্রিকেট আরও বেশি বিস্তার হবে, পরিচালকরা আসবে যাবে- এসব কিছুই এই খেলার জন্য। আর যৌক্তিক জায়গা থেকে এটাই ছিল ফলাফল।’

এর আগে গত মাসে হওয়া শুনানিতে সভাপতি অনুরাগ ঠাকুরের বিরুদ্ধে কোর্টে মিথ্যা বলার অভিযোগ উঠেছিল। সেই শুনানিতে বলা হয়েছিল যে, ক্ষমা না চাইলে বোর্ড সভাপতির এ জন্য জেল হওয়া উচিত। তার কয়েক দিন পর অবশ্য এই অভিযোগ অস্বীকার করে ঠাকুর বলেছিলেন, সুযোগ পেলে আদালতকে এর ব্যাখ্যা দিতে পারেন তিনি।

সোমবার সকাল সাড়ে দশটায় আদালতের কাজকর্ম শুরু হওয়ার পরপরই এই মামলার রায় দেওয়া হয়।

এর আগে লোধা কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী প্রাক্তন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র সচিব জিকে পিল্লাইকে পর্যবেক্ষক হিসেবে রাখার সুপারিশ করা হয়েছিল। তবে একজন নয়, আরও কয়েকজনকে এই একই ক্ষমতা দেওয়া হতে পারে বলে গত শুনানিতেই আলোচনা হয়েছিল। দু’পক্ষের কাছে পছন্দের কয়েকজনের নাম চেয়েছিলেন বিচারপতিরা। ২২ ডিসেম্বরের মধ্যে সেই নাম পেশ করতে বলা হলেও বোর্ডের পক্ষ থেকে কোনও নাম পেশ করা হয়নি।

LEAVE A REPLY