মালদ্বীপকে হারালেই সাফের ফাইনালে বাংলাদেশ

জুনিয়রদের পারফরম্যান্স বছর না ঘুরতেই সঞ্চারিত সিনিয়র পর্যায়ে। প্রথমবারের মতো আটকে দিয়েছে তারা ভারতের মূল জাতীয় দলকে। সেই সোপানে পা রেখে এখন আরেকটি প্রথমের সামনে সাবিনা, কৃষ্ণারা। শিলিগুড়িতে আজ মালদ্বীপকে হারালেই প্রথমবারের মতো সাফের ফাইনালে উঠে যাবে বাংলাদেশ।

আগের তিনটি সাফের দুটিতে সেমিফাইনালে খেলেছে বাংলাদেশের মেয়েরা। দুবারই নেপালের কাছে হেরে শিরোপা লড়াইয়ের মঞ্চটা আর দেখা হয়নি তাদের। দুইবারই বাংলাদেশ খেলে ভারতের গ্রুপে, তাদের কাছে হেরে গ্রুপ রানার্স-আপ, শেষ চারে অন্য গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন নেপালের সঙ্গে দেখা এবং যথারীতি হেরে বিদায়—চিত্রনাট্য ছিল এটিই। এবার ভারতকে রুখে দিয়েই তুলনামূলক সহজ প্রতিপক্ষ মালদ্বীপকে পেয়েছে বাংলাদেশ ফাইনালে ওঠার এ লড়াইয়ে।

সাফে গতবারই গ্রুপ পর্বে তাদের ৩-১ গোলে হারিয়েছে বাংলাদেশ, শিলংয়ে গত এসএ গেমসেও জয় ২-০ গোলে। দলটির বিপক্ষে এখনো পর্যন্ত হার কেন ড্রয়ের রেকর্ডও নেই স্বাগতিকদের। ১০০ ভাগ জয় নিয়ে ফাইনালে চোখ রেখে তাদের বিপক্ষে খেলতে নামবে আজ গোলাম রব্বানীর শিষ্যরা।

আফগানিস্তানের বিপক্ষে একাই পাঁচ গোল করা সাবিনা খাতুন তো মুখিয়ে এই ম্যাচ জিতে ফাইনাল নিশ্চিত করার জন্য, ‘গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে সেমিফাইনালে ওঠায় আমি খুব খুশি। এখন আমাদের একটাই লক্ষ্য ফাইনালে ওঠা। সেরাটা দিয়েই সেই লক্ষ্য পূরণ করতে চাই। ’ রেকর্ডের বিচারে মালদ্বীপ সহজ প্রতিপক্ষ হলেও কোচ রব্বানীও জানিয়েছেন এই ম্যাচে তাদের হালকা করে দেখার সুযোগ নেই।

খেলোয়াড়দের কাছে সেরা পারফরম্যান্সটা তাঁরও চাওয়া, ‘প্রতিপক্ষ হিসেবে মালদ্বীপকে শক্তিশালীই বলব। এখন সব দেশেই মেয়েদের ফুটবল উন্নয়নে কাজ হচ্ছে, সবাই উন্নতি করছে। যেহেতু সেমিফাইনাল খেলা। এখানে কাউকে ছোট করে দেখার সুযোগ নেই। আমরা আমাদের সেরাটা দিয়েই ফাইনালে উঠতে চাই। ’

মালদ্বীপের উন্নতিটা আসলে চোখে পড়ার মতোই। ২০১০ সালে কক্সবাজারে প্রথম সাফ চ্যাম্পিয়নশিপেই প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলে তারা। সেখান থেকে সাফের গত দুই আসরেও পারফরম্যান্সে তেমন উল্লেখযোগ্য কিছু নেই। কিন্তু গত বছরের শুরুতে এসএ গেমসে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে জয়, সঙ্গে ভারতের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র তাদের সামর্থ্যের জানান দেয় নতুনভাবে। জাপানি কোচ নাওকো কাওমাতোর অধীনে সেই ধারাবাহিকতাতেই এবার তাদের সাফের সেমিফাইনালে উঠে আসা। বাংলাদেশের বিপক্ষেও নিশ্চয় আজ উজাড় করে দেবে তারা।

জাপানি কোচ অবশ্য অতি আত্মবিশ্বাসী হচ্ছেন না, ‘বাংলাদেশ এই আসরে দুইবার সেমিফাইনালে খেলেছে, আমরা এই প্রথম উঠে এলাম। তাই এই ম্যাচে বাংলাদেশই ফেভারিট। ’ ভারতের বিপক্ষে আগের ম্যাচে রক্ষণাত্মক খেলা বাংলাদেশ মালদ্বীপের বিপক্ষে আজ অলআউট খেলবে বলেই জানিয়েছেন কোচ গোলাম রব্বানী। গ্রুপ পর্বে শ্রীলঙ্কাকে হারালেও মালদ্বীপ নেপালের কাছে হেরেছে ৯-০ গোলে।

সাবিনাদেরও আজ গোলোৎসবই করার কথা। অনূর্ধ্ব-১৪ বালিকা ফুটবলে সাউথ সেন্ট্রাল এশিয়ায় টানা দুই শিরোপা, অনূর্ধ্ব-১৬ এশিয়ান বাছাইয়ে ইরানের মতো শক্তিশালী দলকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হওয়া বাংলাদেশ সিনিয়র পর্যায়েও একই রকম জ্বলে উঠতে আরো কয়েক বছর সময় নেবে বলেই ভাবা হচ্ছিল। কিন্তু কৃষ্ণা, সানজিদাদের নিয়ে সাবিনারা জ্বলে উঠেছেন এই সাফেই। বাংলাদেশ অধিনায়কের মতে সবচেয়ে ভারসাম্যপূর্ণ দলটাই খেলছে এবার। তাদের ফাইনালে না ওঠার তো কোনো কারণ নেই।

LEAVE A REPLY