দেশে পরীক্ষার্থী বেশি, শিক্ষার্থী কম : আসাদুজ্জামান নূর

দেশে এখন পরীক্ষার্থীর সংখ্যা বেশি, শিক্ষার্থীর সংখ্যা কম। শিক্ষার্থীরা সবাই পাতার পর পাতা বই পড়ছে, কোচিং করছে আর পরীক্ষার খাতায় তা উদ্‌গিরণ করছে। ফলে শিক্ষার সঙ্গে জ্ঞানের সমন্বয় হচ্ছে না। তাই শিক্ষার সঙ্গে জ্ঞানের সমন্বয় করতে সংস্কৃতির প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেছেন সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর।

আজ মঙ্গলবার খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষে প্রথম বর্ষে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তিনি।

আসাদুজ্জামান নূর বলেন, ‘আজ আমরা আমাদের সন্তানদের কেবল জিপিএ-৫ পাওয়াতে ব্যস্ত। ছোট থেকেই শিক্ষার্থীদের ওপর শুরু হয় জিপিএ-৫ পাওয়ার নির্যাতন। শুধু পড়তে পড়তে শিক্ষার্থীদের মস্তিষ্ক খোরমা খেজুরের মতো খটখটা হয়ে যাচ্ছে। এসব থেকে মুক্তি পেতে শিক্ষার পাশাপাশি গান, কবিতা, খেলাধুলা, আঁকাআঁকি থেকে শুরু করে কোনো না কোনো সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে অন্তর্ভুক্ত হওয়া প্রয়োজন।

মন্ত্রী আরও বলেন, ভালো লাগাটা, বোধগম্যতা না থাকলে মানুষ অসম্পূর্ণ থেকে যায়; যার সুযোগ নেয় অপশক্তি। তাদের মধ্যে একধরনের অন্ধকার বাসা বাঁধে, ফলে তারা বিপথগামী হয়। তারা জঙ্গিবাদে জড়িয়ে পড়ে। তিনি খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের চমৎকার শিক্ষার পরিবেশের প্রশংসা করে শিক্ষার্থীদের প্রতি নিরন্তর জ্ঞানসাধনার মাধ্যমে জীবন সফল করতে পুঁথিগত বিদ্যার পাশাপাশি সহশিক্ষামূলক কার্যক্রমে অংশ নেওয়ার আহ্বান জানান।

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথা অনুযায়ী নবাগত শিক্ষার্থীদের শপথবাক্য পাঠ করান ও পরে বক্তব্য দেন। উপাচার্য অভিভাবকদের উদ্দেশে তাঁর সন্তানের নিয়মিত খোঁজখবর রাখার পরামর্শ দেন। পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বলেন শিক্ষার্থীদের নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখতে; তাদের সুখ-দুঃখের সঙ্গী হতে।

অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক প্রাণ গোপাল দত্ত ও খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার খান আতিয়ার রহমান বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন। স্বাগত বক্তব্য দেন সমাজবিজ্ঞান স্কুলের (অনুষদ) ডিন অধ্যাপক মো. আবদুল জব্বার।

LEAVE A REPLY