যমজ জন্ম, কিন্তু বাবা দুজন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায় জন্ম হয়েছিল যমজ শিশু দুটির। এরপর ১৫ মাস ধরে পিতৃত্বের পরিচয় সঙ্কটে ভুগছিল তারা। অবশেষে ইতালীর সর্বোচ্চ আদালত শিশু দুটিকে বৈধ সন্তানের স্বীকৃতি দিয়েছে। তবে যমজ হলেও তারা ভাই নয় এবং তাদের পিতা দুজন বলে রায়ে উল্লেখ করেছে আদালত।

মূলত সমকামী দম্পতির সন্তান হওয়ায় শিশু দুটির ক্ষেত্রে এমন অদ্ভুত ঘটনা ঘটেছে।

ওয়াশিংটন পোস্টের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইতালির এক পুরুষ সমকামী দম্পতি সন্তান জন্ম দেয়ার সিদ্ধান্ত নেন।

এজন্য তারা ইন ভিট্রো ফার্টিলাইজেশন (আইভিএফ) পদ্ধতি বেছে নেয়ার চেষ্টা করেন।

আইভিএফ অনুযায়ী পুরুষের বীর্য নিয়ে কোনো নারী গর্ভ ধারণ করে সন্তান জন্ম দেন। এক্ষেত্রে এক দল নারী রয়েছেন যারা টাকার বিনিময়ে নিজেদের গর্ভ ভাড়া দেন। তাদের বলা হয় স্যারোগেট মা। জন্মের পর সন্তানের উপর কোনো দাবি থাকে না এ মায়েদের।

কিন্তু ইতালীতে আইভিএফ পদ্ধতি নিষিদ্ধ হওয়ার ওই সমকামী দম্পতি  ক্যালিফোর্নিয়ার এক স্যারোগেট মায়ের শরণাপন্ন হন। সেই স্যারোগেট মা দুজন যমজ শিশুর জন্ম দেন। পরে যুক্তরাষ্ট্র থেকে নবজাতকদের নিয়ে ইতালীর মিলান শহরে ফেরেন ওই সমকামী যুগল।

তারা মিলানের জন্মনিবন্ধন কর্মকর্তার কাছে নবজাতক দুটির জন্মনিবন্ধন করতে গেলে তাদের অবৈধ সন্তান আখ্যা দিয়ে নিবন্ধন করতে অস্বীকার করেন তিনি।

এরপর শিশু দুটির জন্মনিবন্ধনের জন্য আদালতে যান সমকামী যুগল। কিন্তু সেখানেও ওই দম্পতির বিরুদ্ধে রায় দেয় আদালত।পরে তারা দেশটির উচ্চ আদালতে আবেদন করলে তা আংশিকভাবে গ্রহণ করা হয়।

আপিলের রায়ে বলা হয় শিশু দুটিকে ওই দম্পতি তাদের ঔরসের সন্তান (বায়োলজিক্যাল) হিসেবে দাবি করতে পারবেন।

তবে সমকামী যুগল যৌথভাবে দুই শিশুর পিতৃত্ব দাবি করতে পারবেন না। বরং দুই জনই একটি করে শিশুকে নিজের সন্তান হিসেবে নিবন্ধন করতে পারবেন। ফলে আলাদা বাবার সন্তান হওয়ায় শিশু দুটি নিজেদের ভাই বলে পরিচয় দিতে পারবে না।

সমকামী দম্পতির দুই শিশুর পরিচয়ের বিষয়টি সাংঘর্ষিক হলেও আদালতের রায়কে অগ্রগতি হিসেবে দেখছে সমকামী দম্পতি ও তাদের সন্তানদের অধিকার বিষয়ক এনজিও ফ্যামিগলি অ্যারকোবালেনো।

এনজিওটির প্রেসিডেন্ট ম্যারিলিয়েনা গ্রাসাডোনিয়া ওয়াশিংনকে পোস্টকে বলেছেন, যমজ শিশু দুটি এখন পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক। তবে তাদের বাবারা চাইলে তাদের জন্য ইতালীর নাগরিকত্ব গ্রহণ করতে পারবেন।

উল্লেখ্য, ইউরোপীয় দেশগুলোর মধ্যে ইতালির জন্মনিবন্ধন আইন সবচেয়ে কড়া।সেখানে আইভএফ পদ্ধতিতে শিশু জন্ম দিতে হলে নারী ও পুরুষকে বিবাহিত দম্পতি বা স্থায়ী যুগল হতে হয়। তাহলেই এ পদ্ধতিতে জন্ম নেয়া শিশু বৈধতা পান।

LEAVE A REPLY