বিশ্ব ইজতেমায় জুমার নামাজে লাখো মুসল্লি

গাজীপুরের টঙ্গীর তুরাগপারে সমবেত হয়েছেন দেশি-বিদেশি লাখো মুসল্লি। গতকাল শুক্রবার জুমার নামাজের আগেই ময়দান পরিণত হয় জনসমুদ্রে। সারিবদ্ধ হয়ে নামাজে অংশ নেন মুসল্লিরা। এর আগে ফজরের নামাজের পর আমবয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয় বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব।

আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে প্রথম পর্বের ইজতেমা শেষ হবে কাল রোববার। ২০ জানুয়ারি শুরু হবে ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব। ২২ জানুয়ারি আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে এবারের বিশ্ব ইজতেমা।

গতকাল ভারতের মাওলানা ওবায়দুল খোরশেদের আমবয়ান উর্দুতে হলেও তা বাংলায় তরজমা করেন বাংলাদেশের মাওলানা জাকির হোসেন। আখেরি মোনাজাতের আগ পর্যন্ত তাবলিগ জামাতের শীর্ষস্থানীয় মুরব্বিরা পর্যায়ক্রমে ইমান, আমল, আখলাকসহ ইসলামের বিভিন্ন বিষয়ে বয়ান করবেন।

ইজতেমার প্রথম পর্বে ১৭টি জেলার জামাতবদ্ধ মুসল্লিরা ময়দানের ২৭টি খিত্তায় (জেলাওয়ারি অবস্থান) করছেন। রাখা হয়েছে পানি, বিদ্যুৎ, চিকিৎসাসেবাসহ আবশ্যকীয় সব ধরনের ব্যবস্থা। নেওয়া হয়েছে কড়া নিরাপত্তাব্যবস্থা।

জুমার নামাজে মুসল্লির ঢল

দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে হাজার হাজার মুসল্লি ইজতেমা মাঠে জুমার জামাতে যোগ দেন। ইজতেমা মাঠের আশপাশের মসজিদগুলোতে জুমার নামাজ পড়ানো হলেও মাঠে সমবেত মুসল্লিদের সঙ্গে নামাজ আদায়ের চেষ্টা ছিল সবারই। জুমার নামাজের সময় ইজতেমার মূল ময়দান ছাড়িয়ে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কসহ আশপাশের আঞ্চলিক সড়কগুলো কানায় কানায় পরিপূর্ণ হয়ে যায়। ইমামতি করেন ঢাকার কাকরাইল মসজিদের মাওলানা মো. ফারুক।

যাঁরা নামাজ আদায়ের জন্য মূল মাঠে পৌঁছাতে পারেননি, তাঁরা রাস্তার ওপরে, বাসের ছাদে, নৌকায় এমনকি বাড়ির ছাদেও নামাজ পড়েন। খবরের কাগজ, পলিথিন, চাটাই বিছিয়ে যে যেভাবে পেরেছেন নামাজে অংশ নিয়েছেন।

ছয় মুসল্লির মৃত্যু

গতকাল সকাল পর্যন্ত ইজতেমায় যোগ দিতে আসা ছয়জন মুসল্লি ইন্তেকাল করেছেন। গতকাল সকাল নয়টার দিকে বাবুল মিয়া (৬০) নামে এক মুসল্লি হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। তিনি ফেনীর দাগনভূঞা উপজেলার মাছিমপুর গ্রামের বাসিন্দা। বৃহস্পতিবার রাতে মারা যান সাহেব আলী (৩৫) নামে আরেক মুসল্লি। বাড়ি মানিকগঞ্জে। এর আগে বুধবার দিবাগত রাতে মারা গেছেন কক্সবাজারের মো. হোসেন আলী (৬৫), বৃহস্পতিবার সকালে ময়মনসিংহের নান্দাইলের মারুয়া গ্রামের মো. ফজলুল হক (৫৬), বিকেলে সাতক্ষীরা জেলা সদরের খেজুরডাঙ্গা এলাকার আবদুস সাত্তার (৬০) এবং সন্ধ্যায় টাঙ্গাইলের ধনবাড়ী উপজেলার নিজবন্নী এলাকার মো. জানু ফকির (৭০) মারা যান। তাঁরা বার্ধক্যের কারণে এবং হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন বলে জানান টঙ্গী সরকারি হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক পারভেজ।

সাত হাজার বিদেশি মুসল্লি

গাজীপুরের পুলিশ সুপার হারুন অর রশীদ জানান, প্রথম দিন আমেরিকা, আরব, ভারত, পাকিস্তান, ইংল্যান্ডসহ বিশ্বের ৮৭টি দেশের সাত হাজারের বেশি বিদেশি মুসল্লি ইজতেমায় অংশ নিয়েছেন। আগামী দুই দিনে এ সংখ্যা আরও বাড়বে।

ভ্রাম্যমাণ আদালত

গাজীপুরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. রাহেনুল ইসলাম জানান, টঙ্গীর ইজতেমাস্থল ও আশপাশের এলাকায় ইজতেমা চলাকালে প্রতিদিন পাঁচজন করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হচ্ছে। হোটেল, রেস্তোরাঁসহ বিভিন্ন দোকানে খাবারের মান ও মেয়াদ যাচাইয়ে আরও ১০টি ভ্রাম্যমাণ আদালত কাজ করে যাচ্ছেন। ভ্রাম্যমাণ আদালত গতকাল ভোক্তা অধিকার আইনে একটি দোকানিকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন।

LEAVE A REPLY