হারতে ভুলে গেছে জিদানের রিয়াল

ম্যাচ শেষে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় মার্সেলো দাবি করলেন, রেকর্ড-টেকর্ডের কথা তাঁরা ভাবেননি। মূল লক্ষ্য ছিল কোপা ডেল রের কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠা। তো রিয়াল সেই লক্ষ্য পূরণ করল বেশ নাটকীয়ভাবেই! সেভিয়ার বিপক্ষে ম্যাচ শেষ হওয়ার ১০ মিনিট আগ পর্যন্ত ৩-১ গোলে পিছিয়ে থেকেও ৩-৩ ড্র। প্রথম লেগে ৩-০ গোলের জয়টা মিলিয়ে ৬-৩ ব্যবধান। কিন্তু রিয়ালের কাছে এ ম্যাচের মাহাত্ম্য কি শুধু এটুকুই?
মনে হয় না। সেভিয়ার মাঠে এই ড্রয়ে সব ধরনের টুর্নামেন্টে টানা ৪০ ম্যাচ অপরাজিত থাকল লস ব্লাঙ্কোরা। স্প্যানিশ ফুটবলের নতুন রেকর্ড। ৩৯ ম্যাচ অপরাজিত থেকে বার্সেলোনা রেকর্ডটি গড়েছিল গত মৌসুমেই। রিয়াল গত সপ্তাহেই ছুঁয়েছিল বার্সাকে, লা লিগায় গ্রানাডাকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দিয়ে। পরশু বার্সেলোনাকে পেছনে ফেলে রেকর্ডটা শুধুই নিজেদের করে নিল জিদানের দল। রেকর্ডের কথা ভাবেননি, মার্সেলো এটা বলছেন বটে, কিন্তু ম্যাচ শেষেই রিয়াল মাদ্রিদের অফিশিয়াল টুইটার থেকে টুইট করা হয়েছে, ‘৪০ ম্যাচ অপরাজিত! নতুন স্প্যানিশ রেকর্ড। এগিয়ে যাও মাদ্রিদ।’ ক্লাবের উচ্ছ্বাসটা তো এতেই স্পষ্ট।
অথচ ম্যাচ শেষের মিনিট দশেক আগেও মনে হচ্ছিল, রিয়ালের অপরাজিত যাত্রা ৩৯ ম্যাচেই শেষ হচ্ছে। ৩-১ গোলে পিছিয়ে রিয়াল। কিন্তু এ যে জিদানের দল! ৮৩ মিনিটে পেনাল্টি আদায় করলেন কাসেমিরো। এমন পরিস্থিতিতে অধিনায়ক রামোস পেনাল্টিতে নিলেন কিনা পানেনকা শট! গোল হতেই সমতা ফেরার আশা জাগল রিয়ালের। আর সেটার পূর্ণতা দিলেন করিম বেনজেমা, ৯৩ মিনিটে তাঁর শটটি জালে জড়িয়ে।
জিনেদিন জিদান দায়িত্ব নেওয়ার পর এ নিয়ে ৫৬টি ম্যাচ খেলেছে রিয়াল। ৪২ জয় ও ১২ ড্রয়ের পাশে হার মাত্র দুটি! গত এপ্রিলে ভলফ্সবুর্গের কাছে ২-০ গোলের হারের পর মুখ কালো করে মাঠ ছাড়া কী জিনিস সেটা যেন ভুলেই গেছে জিদানের দল! রয়টার্স, মার্কা।

LEAVE A REPLY