জকিগঞ্জে কলেজছাত্রীকে কুপিয়ে আহত

সিলেটের জকিগঞ্জ উপজেলায় এক কলেজছাত্রীর ওপর প্রকাশ্যে হামলা চালানো হয়েছে। তাকে ছুরিকাঘাত করা হয়েছে। আজ রোববার বিকেলে কালীগঞ্জ বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

আহত কলেজছাত্রীর নাম ঝুমা বেগম (১৭)। তিনি বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্রী। প্রত্যক্ষদর্শীরা তাকে উদ্ধার করেন। রাতে তাকে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, কালীগঞ্জবাজারে বাহারউদ্দিন (২২) নামে এক যুবক অতর্কিত ঝুমার ওপর হামলা চালায়। এ সময় একটি ছুরি দিয়ে ঝুমার দুই হাত ও পেটের একাংশে আঘাত করে। ঝুমাকে রক্ষা করতে তাঁর মা মাহমুদা বেগম এগিয়ে গেলে বাহার তাঁকে মারধর করে চলে যায়। প্রত্যক্ষদর্শীরা ঝুমাকে উদ্ধার করে প্রথমে জকিগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে রাত আটটার দিকে তাকে এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসা কর্মকর্তা মাসুক হোসেন বলেন, ওই ছাত্রীর দুই হাত ও পেটে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপের চিহ্ন রয়েছে।

পরিবারের বরাত দিয়ে মানিকপুরের সাবেক ইউপি সদস্য আবদুল জলিল জানান, ঝুমা রসুলপুর গ্রামের মুসলিম আলীর মেয়ে। বাহারও একই গ্রামের বাসিন্দা।
হামলার ঘটনার পর বাহার পালিয়ে যাওয়ায় এ বিষয়ে তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

জকিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাবিবুর রহমান হাওলাদার জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ঘটনার সত্যতা পেয়েছে। হামলাকারীকে ধরতে পুলিশ তৎপর রয়েছে। এ ব্যাপারে এখনো কোন অভিযোগ দাখিল হয়নি বলেও তিনি জানান।

LEAVE A REPLY