তিতাসে আওয়ামী লীগ-বিএনপির অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

কুমিল্লার তিতাস উপজেলা আওয়ামী লীগ ও বিএনপি সিন্ডিকেট করে ৪-৫ কোটি টাকার সরকারি জায়গায় জোরপূর্বক মার্কেট নির্মাণ করায় এলাকাবাসী এর বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে রিট করে। হাইকোর্ট বিভাগের নির্দেশে কুমিল্লার তিতাস উপজেলার আসমানিয়া বাজারসংলগ্ন খলিলাবাদ-রঘুনাথপুর খালে বালু ভরাট করে অবৈধভাবে নির্মিত দোকানপাট আজ বুধবার দিনব্যাপী অভিযান চালিয়ে উচ্ছেদ করেন কুমিল্লা জেলা সিনিয়র ম্যাজিস্ট্রেট মো. আব্দুর রউফ তালুকদার।

সরেজমিনে জানা যায়, উপজেলার নারান্দিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আরিফুর রহমান খোকা ও বিএনপি নেতারা মিলে জোরপূর্বক সরকারি জায়গা দখল করে মার্কেট নির্মাণ করেন। এ নিয়ে বাজার কমিটি ও এলাকাবাসী বিক্ষোভে ফেটে পড়ে। আসমানিয়া বাজার কমিটি, কমিটির সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গ, ব্যবসায়ী ও স্থানীয় গণ্যমান্য বক্তিবর্গের দাবিতে নারান্দিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মো. মোয়াজ্জেম হোসেন সেলিম গতবছর বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের মহামান্য হাইকোর্ট বিভাগে বেআইনি ইজারা প্রদান চ্যালেঞ্জ করে একটি রিট পিটিশন করেন যার নম্বর ১০৬৩।

পিটিশনটি আমলে নিয়ে আরএস খতিয়ান ১০৯২, বিএস খতিয়ান ৩১৪২ এবং সকল প্রকার প্রমাণাদি পর্যালোচনা সাপেক্ষে হাইকোর্ট ওই স্থানে যেকোনো ধরনের স্থাপনা নির্মাণে স্থগিতাদেশ দেন এবং কেন স্থাপনা নির্মাণ করা যাবে না- তা জানতে চেয়ে শুনানি করেন যার স্মারক নং-৫.২৯৫.০৪৫.১৬.০০.০৪৩.২০১০.৮৫০৫। অতঃপর বিবাদিরা হাইকোর্টের আদেশ অম্যান্য করে খাস জমি থেকে স্থাপনা নির্মাণ বন্ধ না করায় গত ১৭/০৯/২০১৬ এবং ০২/১১/২০১৬ইং তারিখে পত্রসমূহের মাধ্যমে হাইকোর্ট বিভাগের উপরোক্ত আদেশ ও নির্দেশনা অনুসারে দোকান ও কাঠামো সমূহের অবৈধ নির্মাণ অপসারণ না করে মহামান্য হাইকোর্টের আদেশ ও নির্দেশ প্রতিপালন না করে আদালতের অবমাননা করায় হাইকোর্ট ওই স্থান থেকে সব ধরনের স্থাপনা অপসারণের জন্য প্রশাসনকে নির্দেশ দেন। ওই নির্দেশনা অনুযায়ী আজ বুধবার কুমিল্লা জেলা সিনিয়র ম্যাজিস্ট্রেট মো. আব্দুর রউফ তালুকদারের নেতৃত্বে উচ্ছেদ অভিযান চালানো হয়।

সরেজমিনে আরো জানা যায়, নারান্দিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আরিফুজ্জামান খোকা সাবেক সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা শামসুল হক শান্তি ও উপজেলা বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আক্তারুজ্জামানসহ ৪৪ জনের একটি সিন্ডিকেট ওই জমিটি আত্মসাত করার লক্ষ্যে একশনা লিজ নিয়ে সেখানে মুক্তিযোদ্ধা সুপার মার্কেট নামের একটি মার্কেট নির্মাণ করেন। এ ব্যাপারে নারান্দিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি আরিফুজ্জামান খোকা, সাবেক সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা শামসুল হক শান্তি এবং উপজেলা বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আক্তারুজ্জামানসহ তাঁদের সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করেও তাঁদের মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

LEAVE A REPLY