জনশক্তি রপ্তানির দ্বার উন্মোচিত মালয়েশিয়ায়

সকল জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে মালয়েশিয়ায় উন্মোচিত হয়েছে জনশক্তি রপ্তানির দ্বার মিয়ানমার ইস্যূতে ওআইসি বিশেষ সম্মেলনে যোগদান শেষে শ্রমবাজার ইস্যূ নিয়ে দুদেশের মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকের পর শুক্রবার আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা দিলেন প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম

সদ্য স্থানান্তরিত মালয়েশিয়াস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশনে এসে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সপ্তাহ থেকে অনলাইনের মাধ্যমে মালয়েশিয়ায় জনশক্তি রপ্তানির প্রক্রিয়া শুরু হবে। ইতিমধ্যে ছয় হাজার শ্রমিকের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সত্যায়ন করা হয়েছে। মাসেই ধাপে ধাপে আরো পঞ্চাশ হাজার শ্রমিকের কাগজপত্র সত্যায়ন হবে বলেও আশা প্রকাশ করেন মন্ত্রী

তিনি বলেন, ২০১৬তে সারা বিশ্বে বাংলাদেশ থেকে যতো জনশক্তি রপ্তানি হয়েছে ২০১৭তে শুধু মালয়েশিয়াতেই তার চেয়ে বেশি শ্রমিক রপ্তানি হয় আমরা সেই প্রক্রিয়ায় অগ্রসর হচ্ছি

স্থানান্তরিত বাংলাদেশ হাইকমিশনের কর্মতৎপরতায় সন্তোষ প্রকাশ করেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী। এর আগে নতুন ভবনে স্থানন্তরিত মালয়েশিয়াস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশন ঘুরে দেখেন এবং কথা বলেন সাধারণ শ্রমিকদের সঙ্গে

সময় তার সঙ্গে ছিলেন মালয়েশিয়া নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার মো. শহীদুল ইসলাম, ডেপুটি হাইকমিশনার ফয়সাল আহমেদ, ডিফেন্স উইং মো. হুমায়ুন কবির, লেবার কাউন্সিলর সায়েদুল ইসলাম, মিনিস্টার (রাজনৈতিক) ওয়াহিদা আহমেদ, রাইচ হাসান সারোয়ার, প্রথম সচিব এসকে শাহীন, কমার্শিয়াল উইং ধনঞ্চয় কুমার দাস, প্রথম সচিব হেদায়েতুল ইসলাম, মশিউর রহমান, দ্বিতীয় সচিব তাহমিনা ইয়াসমিন, ফরিদ আহমেদ দুতাবাসের কর্মকর্তাবৃন্দ

এসএন

LEAVE A REPLY