২০১৮ সালের মধ্যেই চট্টগ্রাম-কক্সবাজার রেললাইন

আগামী ২০১৮ সালের ডিসেম্বরের মধ্যেই চট্টগ্রাম-কক্সবাজার রুটে এক শ কিলোমিটার রেললাইন নির্মিত হবে বলে জানিয়েছেন রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক। আজ সোমবার সকালে রাজধানীর কমলাপুর রেলস্টেশনে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহানগর প্রভাতী ট্রেনের নতুন কোচ উদ্বোধন করে তিনি এ কথা বলেন।

উদ্বোধনের পর মহানগর প্রভাতী ট্রেনটি সকাল পৌনে ৭টায় ঢাকা ছেড়ে যায়। যাত্রীদের ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান রেলমন্ত্রী। কক্সবাজার ও বরিশাল পর্যন্ত রেললাইন তৈরির প্রকল্পও দ্রুত শেষ হবে।
তিনি বলেন, রেলপথের সেতুর পাটাতনে বাঁশের ব্যবহার নতুন নয়। এ নিয়ে খবর প্রকাশের ফলে ভুল বোঝাবুঝির সৃষ্টি হয়েছে। রেলমন্ত্রী বলেন, এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের (এডিবি) অর্থায়নে অচিরেই ইন্দোনেশিয়া থেকে আনা প্রায় ২০০টি নতুন কোচ বহরে যোগ হবে। সরকারের লক্ষ্য যাত্রীদের ভালো সেবা দেওয়া। এ সরকারের অবশিষ্ট মেয়াদের মধ্যে রেলের দৃশ্যমান উন্নয়ন দেখা যাবে। ইন্দোনেশিয়া থেকে আনা কোচগুলোতে যাত্রী পরিবহন আরও আরামদায়ক হবে। পর্যায়ক্রমে বাংলাদেশের সব ট্রেনের পুরনো কোচগুলোকে বদলে দেওয়া হবে।

মুজিবুল হক বলেন, ঢাকা-চট্টগ্রাম, ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ এবং জয়দেবপুর থেকে ঈশ্বরদী পর্যন্ত ডাবল লাইনের কাজ শুরু হয়েছে, যা খুব দ্রুত সম্পন্ন হবে। এ ছাড়া ঢাকা থেকে নারায়ণগঞ্জ পর্যন্ত ডাবল লাইন নির্মাণের জন্য শিগগিরই দরপত্র আহ্বান করা হবে। আর আগামী মার্চ মাসের শুরুর দিকে প্রধানমন্ত্রী দ্বিতীয় ভৈরব রেলসেতু ও আখাউড়া সেতুর উদ্বোধন করবেন। আগামী দুই বছরের মধ্যে রেলের প্রকল্পগুলো শেষ হলে এ খাতে যুগান্তকারী উন্নয়ন হবে বলে তিনি মনে করেন। এ সময় রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. ফিরোজ সালাহউদ্দিনসহ রেলওয়ের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

LEAVE A REPLY