গৃহবধূ হত্যার দায়ে স্বামীসহ দুজনের যাবজ্জীবন

লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলার শ্যামগঞ্জ গ্রামে গৃহবধূ ফেরদৌসী বেগমকে (৩২) হত্যার দায়ে স্বামীসহ দুজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। আজ বুধবার বিকেলে লক্ষ্মীপুর জেলা ও দায়রা জজ এ কে এম আবুল কাশেম এ রায় দেন।ফেরদৌসী বেগমের স্বামী যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত ওসমান গণিকে এক লাখ টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে আরও দুই বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। আর ফেরদৌসী বেগমের বোন তছলিমা বেগমকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে আরও ছয় মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, ২০০৮ সালের ২৭ অক্টোবর রাতে গৃহবধূ ফেরদৌসীকে হত্যার পর লাশ পুকুরে ফেলে দেওয়া হয়। এ ঘটনায় নিহত গৃহবধূর বাবা মমিন উল্যাহ বাদী হয়ে জামাতা ওসমানকে প্রধান আসামি করে রামগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। পরে তদন্ত শেষে পুলিশ ওসমান ও ফেরদৌসীর ছোট বোন তছলিমা আক্তারের বিরুদ্ধে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করা হয়।

আসামিপক্ষের আইনজীবী এ রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করার কথা জানিয়েছেন।

LEAVE A REPLY