সীমান্তে দেয়াল নির্মাণের সিদ্ধান্ত প্রত্যাখ্যান মেক্সিকো প্রেসিডেন্টের

সীমান্তে দেয়াল নির্মাণে যুক্তরাষ্ট্রের নবনিযুক্ত প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সিদ্ধান্ত প্রত্যাখ্যান করেছেন মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট এনরিক পেনা নিয়েতো। এজন্য তার দেশ এক পয়সাও দেবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন।
এদিকে দেয়াল নির্মাণের সিদ্ধান্তের খবরে মেক্সিকো প্রেসিডেন্ট আগামী সপ্তাহে ওয়াশিংটনে তার পূর্ব নির্ধারিত সফর ‘বাতিল’ করেছেন, বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে এ ধরনের খবরের বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোনো মন্তব্য করেননি এনরিক পেনা।
এর আগে রেকর্ডকৃত এক টেলিভিশন ভাষণে জাতীর উদ্দেশে প্রেসিডেন্ট পেনা বলেন, আমি দুঃখ প্রকাশ করছি, একইসঙ্গে মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল তৈরির যুক্তরাষ্ট্রের সিদ্ধান্ত প্রত্যাখ্যান করছি।
স্থানীয় সময় বুধবার, ২৫ জানুয়ারি এক টুইট বার্তায় ট্রাম্প জানান, জাতীয় নিরাপত্তার বিষয়ে বৃহৎ পরিকল্পনার অংশ হিসেবে এবং অন্যান্য বিষয় বিবেচনা করে আমরা সীমান্ত দেয়াল নির্মাণ করবো। ‍রাতেই দেয়াল নির্মাণে নির্বাহী আদেশে সই করেন ট্রাম্প।
আগামী কয়েক দিনের মধ্যে অভিবাসী, শরণার্থী ও ভিসা সংশ্লিষ্ট বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান যুক্তরাষ্ট্রের ৪৫তম প্রেসিডেন্ট।
নির্বাচনী প্রচারণায় ট্রাম্প একাধিকবার তার বক্তব্যে বলেছিলেন, প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলে আমেরিকানদের নিরাপত্তার স্বার্থে মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণ করবেন।
অবশ্য তখন এ বিষয় নিয়ে আমেরিকানদের মধ্যেই তুমুল আলোচনা-সমালোচনা হয়। প্রতিবেশী দেশের সঙ্গে এমন আচরণ কতটা যৌক্তিক তা নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়াও দেখা যায়।
প্রেসিডেন্টের দায়িত্বগ্রহণের প্রথম সপ্তাহের মধ্যেই ট্রাম্প তার কথা মতো মেক্সিকো সীমান্তে দেওয়াল নির্মাণের নির্দেশ দেন। মাত্র একদিন আগেই অন্যতম আলোচিত এবং গুরুত্বপূর্ণ টিপিপি (ট্রান্স-প্যাসিফিক পার্টনারশিপ) বাণিজ্য চুক্তি বাতিল করেছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

LEAVE A REPLY