২৮ জানুয়ারি বিক্ষোভ ও ২৫ ফেব্রুয়ারি অবস্থান ধর্মঘটের ঘোষণা

আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীতে ডাকা হরতালে পুলিশি হামলার প্রতিবাদে নতুন কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির সদস্যসচিব আনু মুহাম্মদ। আগামী ২৮ জানুয়ারি শনিবার সারাদেশে প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ দিবস, ঢাকার প্রেসক্লাব ও শাহাবাগে সমাবেশের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

একইসঙ্গে আগামী ২৫ ফেব্রুয়ারি সারাদেশে অবস্থান ধর্মঘটেরও ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। আজ বৃহস্পতিবার বেলা দেড়টার দিকে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে থেকে তিনি এই ঘোষণা দেন। ১১ মার্চ উপকূলীয় অঞ্চলের স্থানীয় সাধারণ মানুষকে নিয়ে খুলনা মহানগরীতে মহাসমাবেশ হবে বলেও ঘোষণা করেন তিনি। এসব কমর্সুচি ছাড়াও এ সময়ের মধ্যে আলোচনা সভা করবেন তারা।
উল্লেখ্য, সুন্দরবনের পাশে রামপালে বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনের সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসার দাবিতে বৃহস্পতিবার ভোর ৬টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত হরতাল পালন করে তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি। গত ২৬ নভেম্বর শহীদ মিনারের সমাবেশ থেকে এ কর্মসূচি ডাকা হয়েছিল। বিএনপি, গণতান্ত্রিক বাম মোর্চা, ছাত্রদলসহ কয়েকটি সংগঠন বিবৃতি দিয়ে এই হরতালে সমর্থন জানায়। আজ বৃহস্পতিবার সকাল থেকে সুন্দরবন রক্ষার দাবিতে রাজধানীতে বিচ্ছিন্নভাবে হরতাল হয়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) ক্যাম্পাসের আশপাশের এলাকা, শাহবাগ, আজিমপুরে বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই হরতালের সমর্থকরা অবস্থান নেন। বিভিন্ন স্থানে অবস্থান নিয়ে যান চলাচলে বাধা দেওয়ার চেষ্টা করেন কেউ কেউ। হরতালের সমর্থনে বেশ কয়েকটি স্থানে মিছিলও করতে দেখা যায়। তবে এসব এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়। হরতালকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে শাহবাগে জলকামান ও টিয়ারশেল ব্যবহার করা হয়। এসময় ছাত্র ইউনিয়নের বেশকিছু নেতাকর্মী আহত হন।

LEAVE A REPLY