সাতটি মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ট দেশের লোকজনের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প অভিবাসন সীমিত করতে নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষর করেছেন।

শুক্রবার পেন্টাগনে প্রতিরক্ষামন্ত্রী জেন জেমস ম্যাটিসের শপথ অনুষ্ঠানে অংশ গ্রহণের পর তিনি এ নির্বাহী আদেশে সই করেন। এর কয়েক ঘণ্টা পরে নির্বাহী আদেশটি প্রকাশিত হয়। খবর বিবিসি, রয়টার্সের।

এই আদেশ অনুসারে, যুক্তরাষ্ট্রের শরণার্থী গ্রহণ কর্মসূচি চার মাস স্থগিত করা হয়েছে। আর ৯০ দিনের জন্য সিরিয়াসহ সাতটি মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ট দেশের লোকজনের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

নিষেধাজ্ঞার আওতায় পড়া অন্য মুসলিম দেশগুলো হল- ইরান, ইরাক, লিবিয়া, সোমালিয়া, সুদান ও ইয়েমেন।

হোয়াইট হাউস জানিয়েছে, সন্ত্রাসী হামলা থেকে আমেরিকাকে রক্ষার জন্যই এ পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষরের পর পেন্টাগনে ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, যুক্তরাষ্ট্র থেকে ইসলামপন্থী সন্ত্রাসীদের দূরে রাখতে আমি অভিবাসন বিষয়ে নতুন পদক্ষেপ নিয়েছি। এখানে আমরা তাদের (শরণার্থী) কোনোভাবেই দেখতে চাই না।

তিনি আরও বলেন, আমরা শুধুমাত্র তাকেই আমাদের দেশে থাকার অনুমতি দিতে পারি, যারা আমাদের দেশকে সমর্থন করে এবং আমার জনগণকে গভীরভাবে ভালোবাসে।

এছাড়া শুক্রবার একটি টিভি চ্যানেলকে দেয়া সাক্ষাৎকারে ট্রাম্প বলেছেন, ভবিষ্যতে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের ক্ষেত্রে সিরীয় শরণার্থীদের মধ্যে খ্রিষ্টানদের অগ্রাধিকার দেয়া হবে।

LEAVE A REPLY