জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা সপ্তাহ ২০১৭র উদ্বোধন

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সাক্ষরতার হার ৭১ শতাংশে উন্নীত হয়েছে। প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শতভাগ ভর্তি নিশ্চিত করা হয়েছে। প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষায় প্রায় শতভাগ উত্তীর্ণ হচ্ছে। আমি আশা করি, ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টায় শিক্ষা খাতে উন্নয়নের মাধ্যমে আমরা সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দারিদ্র্যমুক্ত ও নিরক্ষরতামুক্ত সুখী-সমৃদ্ধ স্বপ্নের ‘সোনার বাংলা’ নির্মাণ করতে সক্ষম হব।

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেছেন, নৈতিক ও মানবিক মূল্যবোধসম্পন্ন, সুশিক্ষিত আগামী প্রজন্ম গড়ে তুলতে প্রাথমিক শিক্ষার উন্নয়নে ব্যাপক কর্মসূচি বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে সরকার। শিক্ষায় লিঙ্গ সমতা আনার স্বীকৃতিস্বরূপ আমরা ইউনেস্কো ‘শান্তিবৃক্ষ’ পুরস্কার পেয়েছি। সরকার সবার জন্য শিক্ষা (ইএফএ) বাস্তবায়ন করেছে।

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ বলেছেন, প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শ্রেণি পাঠদানের কার্যক্রমে মাল্টিমিডিয়ার ব্যবহারসহ শেখ রাসেল ডিজিটাল লার্নিং সহায়ক কন্টেন্ট তৈরির মাধ্যমে আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহৃত হচ্ছে। তাই শিক্ষা সপ্তাহের প্রতিপাদ্য ‘শিক্ষার আলো জ্বালব, ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ব’ অত্যন্ত সময়োপযোগী হয়েছে বলে আমি মনে করি।কালেরকন্ঠ

LEAVE A REPLY