ট্রাম্পের নিষেধাজ্ঞায় পড়তে পারে পাকিস্তানও

আগেই সাতটি মুসলিম দেশের মানুষকে যুক্তরাষ্ট্রে ঢুকতে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছেন সেদেশের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সেই তালিকায় এবার ঢুকতে পারে পাকিস্তান ও আফগানিস্তান। এমন ইঙ্গিত দিয়েছে হোয়াইট হাউস সূত্র। তবে অন্যরা চিন্তায় থাকলেও দেশের স্বার্থে এমন সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফের চেয়ারম্যান ও সাবেক ক্রিকেটার ইমরান খান।

নিউইয়র্কস টাইমসসহ গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়- হোয়াইট হাউসের চিফ অফ স্টাফ রেন্স প্রিবাস জানিয়েছেন, ‘‌ওবামা সরকারই বেশ কয়েকটি দেশকে জঙ্গিদের আতুঁরঘর হিসেবে চিহ্নিত করেছিল। বলা হয়েছিল, ওই দেশগুলিতে জঙ্গি কার্যকলাপ চলে। সেই জন্যই সাতটি দেশের মানুষকে প্রবেশাধিকার দিতে চাইছে না ট্রাম্প সরকার। ওবামার করা তালিকায় ছিল পাকিস্তান ও আফগানিস্তানও। আপাতত ৭ টি দেশকে এই তালিকায় রাখলেও ভবিষ্যতে পাকিস্তান আফগানিস্তানকেও তালিকায় ঢুকিয়ে নেওয়া হতে পারে। সেক্ষেত্রে, সে দেশের মানুষও আর যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করতে পারবেন না।

যদি সত্যিই আমেরিকা পাকিস্তানের ওপর নিষেধাজ্ঞা চাপায়, তাহলে আন্তর্জাতিক রাজনীতির সমীকরণ অনেকটাই বদলে যাবে। সরাসরি আমেরিকার বিপক্ষে দাঁড়িয়ে চীনের সমর্থনে এক অন্য শক্তি বৃত্ত তৈরি করার পথে আরও কিছুটা এগোতে বাধ্য হবে পাক প্রশাসন।

এদিকে, ইমরান খান বলেছেন, ভিসা নিষিদ্ধ করে পাকিস্তানিদের গালেও থাপ্পড় মারবে যুক্তরাষ্ট্র। তখন পাকিস্তানিদের নিজের দেশ নিয়ে হুঁশ ফিরবে।

তিনি বলেন, ‘আমি প্রার্থনা করি যে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প আমাদেরকে (পাকিস্তানিদেরকে) ভিসা দেয়া বন্ধ করুক। কারণ আমরা তখন নিজ দেশের সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করবো।’

‘মাথাব্যথা থাকলেও বিদেশ সফর করবেন প্রধানমন্ত্রী। যদি ভিসা নিষিদ্ধ করা হয়, তাহলে আমরা নিজেদের পায়ে দাঁড়িয়ে পাকিস্তানের উন্নয়ন ঘটাতে পারবো।’-বলেন তিনি।

LEAVE A REPLY